আজ: ২৫শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার, ১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৬শে জিলকদ, ১৪৪৩ হিজরি, দুপুর ১:৩৫
সর্বশেষ সংবাদ
শিক্ষাঙ্গন বেরোবিতে পরীক্ষার ফল প্রকাশে অনিয়ম; সংশোধন চায় অধিকার সুরক্ষা পরিষদ

বেরোবিতে পরীক্ষার ফল প্রকাশে অনিয়ম; সংশোধন চায় অধিকার সুরক্ষা পরিষদ


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ২২/০৬/২০২২ , ১১:৫৬ অপরাহ্ণ | বিভাগ: শিক্ষাঙ্গন


বেরোবি প্রতিনিধিঃ

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের ২০১৭ সালের মাস্টার্স ১ম সেমিস্টার চূড়ান্ত পরীক্ষার অনিয়ম করে প্রকাশিত ফলাফল সংশোধন ও উক্ত ফলাফল প্রকাশে অনিয়ম এর সাথে জড়িত কর্মকর্তার তদন্তপূর্বক শাস্তি দাবী করে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বরাবর লিখিত আবেদন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থীদের সর্ববৃহৎ সংগঠন অধিকার সুরক্ষা পরিষদ।

বুধবার (২২জুন) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার এর কাছে উক্ত ফলাফল সংশোধন ও অনিয়মে জড়িত কর্মকর্তার তদন্ত সাপেক্ষে বিচার দাবী করে লিখিতভাবে অভিযোগ জানায় অধিকার সুরক্ষা পরিষদ। অভিযোগপত্রে অধিকার সুরক্ষা পরিষদের পক্ষে ২০জন শিক্ষক ও কর্মকর্তা স্বাক্ষর করেন।

অভিযোগপত্র সূত্রে জানা যায়, গত ৪ জানুয়ারি ২০২১ সালে গভীর রাতে পরীক্ষকের বিস্তারিত নম্বরপত্র ছাড়াই ২০১৭ সালের ইংরেজি বিভাগের মাস্টার্স ১ম সেমিস্টার চূড়ান্ত পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয়। তৎকালীন পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকসহ উধ্বতন কর্মকর্তার স্বাক্ষর ছাড়াই উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক সামসুল আলম একই দপ্তরের উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক লিখিল চন্দ্র বর্মনের যোগসাজশে ফলাফল প্রকাশ করেন। উক্ত ঘটনার প্রতিবাদ করায় তৎকালীন পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক ড. মোর্শেদ হোসেনকে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের পদ থেকে সরিয়ে অধ্যাপক ড. নাজমুল হককে দায়িত্ব দেয়া হয়।

কিন্তু এখন পর্যন্ত সেই পরীক্ষার ফলাফলের বিস্তারিত কপি পরীক্ষকের কাছ থেকে গ্রহন করা হয়নি। যা একাডেমিক কর্মকান্ডে চরম অনিয়ম বলে মনে করে অধিকার সুরক্ষা পরিষদ।

উক্ত ফলাফল প্রকাশে অনিয়মের বিষয়টি উল্লেখ করে অধিকার সুরক্ষা পরিষদ ১৪ জানুয়ারি ২০২১ সালে নবনিযুক্ত পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক ড. নাজমুল হকের সাথে দেখা করলে তিনি পুনরায় ফল প্রকাশের আশ্বাস দেন। কিন্তু অদ্যবধি সেই ফলাফল সংশোধন করা হয়নি।

তাই উক্ত পরীক্ষার ফলাফলে অনিয়মের সাথে জড়িত কর্মকর্তার তদন্তপূর্বক শাস্তিসহ পুনরায় ফলাফল প্রকাশের দাবী জানায় অধিকার সুরক্ষা পরিষদ।

অভিযোগের বিষয়ে উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক লিখিল চন্দ্র বর্মণ বলেন, সংকটকালীন সময়ে আমাকে কর্তৃপক্ষ যে দায়িত্ব দিয়েছিলো আমি সেটা পালন করেছি।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মোঃ আলমগীর ইসলাম বলেন, অনিয়ম করে ফলাফল প্রকাশের বিষয়ে আমি একটি লিখিতে অভিযোগপত্র পেয়েছি। উপাচার্য মহোদয়ের সাথে কথা বলে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Comments

comments

Close