আজ: ২২শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২১শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি, রাত ১২:৫৩
সর্বশেষ সংবাদ
জেলা সংবাদ সৈয়দপুরে সাংবাদিকের উপর হামলা ও বিকৃত পোষ্টার টাঙ্গিয়ে অপদস্ত-তদন্তে BMSF টিম

সৈয়দপুরে সাংবাদিকের উপর হামলা ও বিকৃত পোষ্টার টাঙ্গিয়ে অপদস্ত-তদন্তে BMSF টিম


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ২৪/০৪/২০২২ , ৯:০১ অপরাহ্ণ | বিভাগ: জেলা সংবাদ


শরিফা বেগম শিউলী:
নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার ব্রাকবোন ড্রেন সৈয়দপুর পৌরসভা নিজেদের দাবী করে স্থায়ী সবজি বাজার নির্মাণের সংবাদ স্থানীয় একটি পত্রিকায় প্রকাশিত হলে সাংবাদিক মোতালেব হোসেন হকের উপর সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়। পরবর্তীতে ফটোশপ সম্পাদনের মাধ্যমে তার ফেসবুক প্রোফাইল ছবিতে এডিট করে জুতার মালা পড়িয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ সৈয়দপুর শহরের বিভিন্ন স্থাপনায় ও পিলারে টাঙ্গিয়ে সমাজে হেয় প্রতিপন্ন করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে ভূমিদস্যুরা। এতে সাংবাদিক ও সুধী সমাজে নিন্দার ঝড় উঠেছে।

সরেজমিনে গেলে জানা যায়, সাংবাদিক মোতালেব হোসেন হককে জুতার মালা পরানো বিকৃত পোস্টারটি এখন সারা শহরে। রংপুর থেকে প্রকাশিত দৈনিক দাবানল-এর বিশেষ প্রতিবেদক তিনি। ফটোশপে সম্পাদনার মাধ্যমে তাঁর ফেসবুক প্রোফাইলে থাকা একটি ছবিতে জুতার মালা সংযুক্ত করে রাস্তায় রাস্তায় প্রদর্শণ করা হয়েছে। সাহস নিয়ে সত্য বলেন, তাই ‘হক সাংবাদিক’ নামেই পরিচিতি অবাঙ্গালী অধ্যুষিত শহর সৈয়দপুরে। একজন সংবাদকর্মীর জীবনে এই পরিনাম মেনে নিতে পারছেন না সহকর্মীদের অনেকেই।

এরআগে, রেলওয়ের জমি অবৈধ দখলে নিয়ে পৌরসভার সবজি মার্কেট নির্মাণ নিয়ে রিপোর্ট করার পরিণামে গত শুক্রবার (৮ এপ্রিল ) রাত ১০.৩৫ মিনিটে ( সিসিটিভি ফুটেজ অনুযায়ী) ওই কাজের ঠিকাদার ও তার বাহিনীর হামলার শিকার হবার পর এখন তাকে সমাজে হেয়প্রতিপন্ন করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করছেন অনেকেই। সাংবাদিকের উপর নিপীড়নে মদদ দেয়ার অভিযোগ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান মোকছেদুল মোমিনের বিরুদ্ধে। প্রকাশ্য সভাসমাবেশ করে সাংবাদিকের হাত পা ভেঙ্গে দেয়ার হুমকি ধামকি দিচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম (BMSF)এর পাঁচ সদস্য টিম অনুসন্ধানে গেলে জানা যায়, অবাঙ্গালী অধ্যুষিত নীলফামারীর রেলের শহর সৈয়দপুরে ১৯৮৪ সালে এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ ভূমি প্রশাসনের মাধ্যমে ২৫.৭৫ একর জমি লিজ দেয় সৈয়দপুর পৌরসভাকে। উল্লেখ, রেলের বাজার আছে সেই জমিতে শুধু উন্নয়ন কাজে অনুমতি দিতে পারবে পৌরসভা। এছাড়া জমি, রাস্তা-ঘাট, বাজার, মসজিদ পৌরসভার নিকট হস্তান্তর করে। এরপর থেকেই শুরু হয় রেলের জমি দখল করে বহুতল ভবন, বাজার, মার্কেট, আবাসিক হোটেল, বাসা নির্মাণ। এসব দখলদার ভূমিদস্যুদের বিরুদ্ধে ধারাবাহিক সংবাদ প্রকাশিত হওয়ায় বিষয়টি নজরে আসে রেল কর্তৃপক্ষের। ফলে গত ১৪ই এপ্রিল ২০২২ রেলের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামীম হুসাইন এর উপস্থিতিতে রেলের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট নুরুজ্জামান সৈয়দপুর আধুনিক পৌর সবজি বাজারের নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করে কাজ বন্ধ করে দেওয়ার নিদের্শ দেন।

এ রূপ কর্মকান্ডে নিজেদের অপরাধ ঢাকতে পৌরসভার কয়েকজন জনপ্রতিনিধিসহ ভূমিদস্যুরা সংবাদ পরিবেশনকারী সাংবাদিক মোতালেব হোসেনের বিরুদ্ধে শহরে শাস্তির দাবী চেয়ে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে। অপরদিকে সামাজিকভাবে তাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য ভূমিদস্যুরা পরিকল্পিতভাবে শহরের বিভিন্ন স্থাপনায় ও ইলেকট্রনিক পিলারে জুতার মালা পরিহিত মোতালেব হোসেনের ছবির পোস্টার টাঙ্গিয়ে দিয়ে ছবি তুলে ফেসবুক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবিটি ভাইরাল করে দেয়।

ঘটনা প্রত্যাক্ষদর্শী ও স্থানীয় বাসিন্দারা জানায়, মূলত সরকারী দল আওয়ামী লীগের উপজেলা পর্যায়ের দুই শীর্ষ কর্মকর্তার বিরোধের বলি মোতালেবও একই দলের নেতা। রেলের লোহা চুরি, জমি দখল নিয়ে সংবাদ প্রচার করায় একসময়ে রেলের খালাসী বর্তমান সৈয়দপুর উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি মোকছেদুল মোমিনের সাথে সাংবাদিক মোতালেব হোসেন হকের সাথে দীর্ঘদিন ধরে দ্বন্দ্ব চলে আসতেছে। একজন সাহসী সাংবাদিক হিসেবে সংবাদ করায় তার উপর হামলা-মামলা হয়েছে। এছাড়াও তাকে সমাজে হেয়প্রতিপন্ন করার জন্য মিথ্যা চাঁদাবাজ সাংবাদিক বলে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে গলায় জুতার মালা দেয়ার বিষয়টি মেনে নিতে পারছে না সৈয়দপুরের মানুষ। একজন সৎ সাংবাদিক হিসেবে মোতালেব হোসেন হক অন্যায়ের প্রতিবাদ করে সংবাদ পরিবেশন করতে গিয়ে যদি তাকে হুমকি-ধামকি, হামলা-মামলার শিকার হতে হয় সেটা সাংবাদিক সমাজ এবং রাজনৈতিকমহলকে হেয়প্রতিপন্ন করা হয়।

এ বিষয়ে হামলা-মামলার শিকার ভুক্তভোগী সাংবাদিক মোতালেব হোসেন বলেন, দীর্ঘদিন থেকে রেলের লোহা চুরি, জমি দখলসহ সৈয়দপুর পৌরসভা রেলের ব্যাকবোন দখল করে স্থায়ী মার্কেট নির্মাণ করছে। যা আমি ধারাবাহিকভাবে সংবাদ প্রকাশ করে আসছি। ফলে রেল কর্তৃপক্ষ অবৈধ মার্কেট নির্মাণ বন্ধ করে দিলে স্থানীয় সুবিধাভোগী অসৎ ব্যবসায়ী ভূমিদস্যু ও কয়েকজন রাজনৈতিক নেতার যোগসাজসে আমার উপর হামলা চালানো হয়। এবিষয়ে ঘটনার পরের দিন থানায় মামলা দিলে, থানা মামলা না নেয়ায় কোর্টে মামলা দায়ের করি। আর সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার বিষয়টি আইনী পদক্ষেপ প্রক্রিয়াধীন।
তিনি আরও বলেন, আমাকে হেয় করার জন্য আমার নামে মিথ্যা চাঁদাবাজীর মামলা করা হয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন মাধ্যমে আমার হাত পা ভেঙে দেয়াসহ হত্যার হুমকি দিচ্ছেন বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান মোকছেদুল মোমিন। আমি বাসা থেকে বের হতে পারছি না। বর্তমানে আমি আমার পরিবার নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় আছি।

এ ব্যাপারে বক্তব্য চাইলে একাধিকবার সময় দিলেও শেষ পর্যন্ত কোন বক্তব্য দেননি সৈয়দপুর উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি মোকছেদুল মোমিন
সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক মহসীন হক মহসীন বলেন, সাংবাদিক মোতালেব হোসেন হক, তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক। তিনি সাংবাদিক হিসেবে সংবাদ করেছে, সেটা যদি মিথ্যা হয় তাহলে প্রতিবাদ জানাবে কিংবা আইসিটি মামলা হবে। কিন্তু কোন যাছাইবাচাই না করে তার উপর যে হামলা হলো সেটা আমরা ভাল চোখে দেখছি না। হামলার পরপরই আমরা সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ তৎক্ষণাত একটি প্রতিবাদ মিছিল করি। এই প্রতিবাদ মিছিলের মাধ্যমে আমরা হামলাকারীদের জানান দিয়েছি যে আমরা রাজপথে আছি। এই হামলার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্দমূলক শাস্তির দাবি করছি।

তিনি আরও বলেন, একজন সাংবাদিকের গলায় জুতার মালা পড়িয়ে পোস্টার লাগানোসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়া খুবই দুঃখজনক এবং খারাপ নজির স্থাপন করলো। জুতার মালা কেন পড়াবে, কি অপরাধ করেছে সে! সে তো কোন দোষী সাববস্ত হয় নাই। যারা এমনটা করেছে তাদের বিরুদ্ধে সামাজিক এবং রাষ্ট্রীয়ভাবে ব্যবস্থা নেয়া জরুরী বলে আমি মনে করি।

এ বিষয়ে রেলওয়ের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট নুরুজ্জামান ও সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে মুঠোফোনে কথা বলা হলে, তারা কেউই মন্তব্য করতে রাজি হননি।

Comments

comments

Close