আজ: ২৯শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার, ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৮শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি, সকাল ৮:৩৩
সর্বশেষ সংবাদ
আন্তর্জাতিক ইমরানকে বাঁচিয়ে আনা এই লোকটি কে?সঠিক লোক’ কোয়েট্টার সুরির চালে ধরাশায়ী বিরোধীরা

ইমরানকে বাঁচিয়ে আনা এই লোকটি কে?সঠিক লোক’ কোয়েট্টার সুরির চালে ধরাশায়ী বিরোধীরা


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ অনলাইন | প্রকাশিত হয়েছে: ০৪/০৪/২০২২ , ৭:৫১ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: আন্তর্জাতিক


আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ২২ গজে বহু বার শেষ মুহূর্তে সরফরাজ নাওয়াজ, জাভেদ মিয়াঁদাদ বা ওয়াসিম আকরামকে দিয়ে খেলার মোড় ঘুরিয়েছেন। হাসতে হাসতে জিতে ফিরেছেন নিশ্চিত হারা ম্যাচ। সেই রেশ ধরে এবারও খেললেন ক্যাপ্টেন। তবে কে এবারের অস্ত্র? তিনি হলেন পাকিস্তান পার্লামেন্টের ডেপুটি স্পিকার কাশিম সুরি। চর্চা এবার তাকে নিয়েই।এই সুরিই পাকিস্তানের ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলিতে বাতিল করে দেন ইমরান সরকারের বিরুদ্ধে আনা অনাস্থা প্রস্তাব। অঙ্কের বিচারে যে ‘ম্যাচে’ ইমরানের হার নিশ্চিত ছিল। এ সবের মধ্যেই পাকিস্থানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি ইমরানেরই প্রস্তাব মেনে অ্যাসেম্বলি ভেঙে দিয়েছেন। ৯০ দিনের মধ্যে নতুন করে ভোট দেবে পাকিস্তান। বেছে নেওয়া হবে পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী।অধিবেশন শুরুর আগেই স্পিকার আসাদ কাইজারের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনেন বিরোধীরা। এই অনাস্থাভোট করানোর দায়িত্ব গিয়ে পড়ে ডেপুটি স্পিকার সুরির উপর। সুরি স্পিকারের চেয়ারে বসেই বললেন, ‘‘আমি, ডেপুটি স্পিকার হিসেবে রুলিং দিচ্ছি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে আনা অনাস্থা প্রস্তাব বাতিল করা হল।’’ তার পরই তিনি অনির্দিষ্টকালের জন্য অ্যাসেম্বলি মুলতুবি করে দেন। দিশেহারা বিরোধীদের অভিযোগ, নাটের গুরু ইমরানই সুরিকে দিয়ে এই জঘন্য খেলা খেললেন।বালুচিস্তানের প্রাদেশিক রাজধানী কোয়েট্টা শহরে ১৯৬৯-এ একটি পাশতুন পরিবারে জন্ম কাসিম সুরির। সুরির পড়াশোনা শুরু কোয়েট্টা ইসলামিয়া স্কুলে। তার পর ফেডারেল গভর্নমেন্ট কলেজ। ইমরান যে বছর দেশকে বিশ্বকাপ এনে দেন, সেই ১৯৯২-এ বালুচিস্তান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আন্তর্জাতিক সম্পর্কে স্নাতকোত্তর করেন সুরি। সেই সময় থেকেই ইমরানের ভক্ত। ১৯৯৬-এ যোগ দেন ইমরানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)-এ। শুরুতে একেবারে তৃণমূল স্তরে কাজ করতেন।২০১৩-য় পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনে পিটিআই প্রার্থী হিসেবে প্রথমবার ভোটে লড়েন সুরি। কিন্তু কোয়েট্টার একটি আসন থেকে হেরে যান। ২০১৮-য় ফের কোয়েট্টার অন্য একটি আসন থেকে পিটিআইয়ের প্রতীকে লড়েন। এ বার জয়ের স্বাদ পান। ১৩ অগাস্ট, তাকে পাকিস্তানের ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির ডেপুটি স্পিকার করে পিটিআই। তারপর থেকে সেই দায়িত্বই পালন করে যাচ্ছেন একদা ইমরানের অধিনায়কত্বের অন্ধ ভক্ত, বর্তমানে খান সাহেবের সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য সঙ্গী সুরি।তিন দশক আগে, বিশ্বকাপ জেতার পর বিভিন্ন সাক্ষাৎকারে ইমরান নিয়ম করে বলতেন, অধিনায়ক হিসেবে তার সবচেয়ে বড় কাজ হল, কে আপনাকে ম্যাচ জেতাবে, দলের মধ্যে তাকে চিহ্নিত করে ফেলা। ইমরানের দাবি ছিল, সেই ‘সঠিক লোক’ই তাকে একের পর এক ‘হার্ডল’ পার করিয়েছে অবলীলায়।১৯৯২-এর মেলবোর্নে ইমরানের চোখে ‘সঠিক লোক ওয়াসিমের দাপটে ধরাশায়ী হয়েছিল ইংল্যান্ড। ঠিক ৩০ বছর পর, ইমরানের এ বারের ‘সঠিক লোক’ কোয়েট্টার সুরির চালে ধরাশায়ী বিরোধীরা। আপাতত মান বাঁচল ক্যাপ্টেনের।

Comments

comments

Close