আজ: ২২শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২১শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি, রাত ১:২৪
সর্বশেষ সংবাদ
শিক্ষাঙ্গন গুচ্ছ পদ্ধতিতে না যাওয়ার পক্ষে মত ইবি শিক্ষকদের

গুচ্ছ পদ্ধতিতে না যাওয়ার পক্ষে মত ইবি শিক্ষকদের


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ০৩/০৪/২০২২ , ৭:০৯ অপরাহ্ণ | বিভাগ: শিক্ষাঙ্গন


ইবি প্রতিনিধি:

গুচ্ছ পদ্ধতি থেকে বেরিয়ে ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় নেয়ার দাবি জানিয়েছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) শিক্ষক সমিতি।

রবিবার (০৩ এপ্রিল) বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এক লিখিত বক্তব্যে এ দাবি জানানো হয়। শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে ইবি রিপোর্টার্স ইউনিটির দপ্তর সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান রাকিবসহ অন্যান্য সাংবাদিকদের সামনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. জাহাঙ্গীর হোসেন।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, গত ২রা এপ্রিল গুচ্ছ পদ্ধতিতে স্নাতক প্রথমবর্ষের ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির জরুরী সভায় শিক্ষকরা অভিমত ব্যক্ত করেন, শিক্ষার্থীদের আর্থিক, শারিরীক ও মানসিক দূর্ভোগ লাঘবের জন্য গুচ্ছ পদ্ধতি প্রবর্তন করা হলেও পরীক্ষা পরবর্তী সময়ে দেখা যায় এর চিত্র সম্পূর্ণ বিপরীত। এসময় সকলের মতামতের উপর ভিত্তিতে গুচ্ছতে না গিয়ে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণের দাবি জানানো হয়। সভায় সর্বোসম্মতিক্রমে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের স্ট্যাটিউট অনুযায়ী ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণ করার জন্য কর্তৃপক্ষের নিকট জোর দাবী জানানোর সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এ সত্বেও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ যদি গুচ্ছ পদ্ধতিতে প্রথমবর্ষ স্নাতক (সম্মান) ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে তাহলে শিক্ষকগণ ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত কোন কাজে অংশ গ্রহণ করবেন না মর্মে সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।

লিখিত বক্তব্যে আরও বলা হয়, যে উদ্দেশ্য নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা চালু করা হয়েছে তা পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ মনে করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বায়ত্তশাসন অক্ষুন্ন রেখে স্ট্যাটিউট অনুসারে পৃথকভাবে ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণ করলে শিক্ষার্থী এবং অবিভাবকগণের আর্থিক সাশ্রয় এবং কষ্ট লাঘব হবে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. শেখ আবদুস সালাম বলেন, শিক্ষকদের দাবিগুলোর একটা চিঠি হাতে পেয়েছি। আমাদের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত মিটিং আছে। সেখানে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান তুলে ধরবো। মূলত শিক্ষার্থীরা যাতে কোনোভাবেই ক্ষতিগ্রস্ত না হয় এটাই প্রধান লক্ষ্য।

Comments

comments

Close