আজ: ২২শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২১শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি, রাত ১:৪৮
সর্বশেষ সংবাদ
জেলা সংবাদ, শিক্ষাঙ্গন মাইকে ঘোষণা দিয়ে ইবি শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা

মাইকে ঘোষণা দিয়ে ইবি শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ২৫/০৩/২০২২ , ৮:৪৮ অপরাহ্ণ | বিভাগ: জেলা সংবাদ,শিক্ষাঙ্গন


ইবি প্রতিনিধি:

খুলনা থেকে আসা কুষ্টিয়াগামী গড়াই বাসে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) কয়েকজন শিক্ষার্থী হেনস্তার শিকার হয়েছেন। একে কেন্দ্র করে ক্যাম্পাসের লালন শাহ হল পকেট গেট সংলগ্ন মহাসড়কে সাধারণ শিক্ষার্থীদের সাথে স্থানীয়দের সংঘর্ষ হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৪ মার্চ) রাত সাড়ে ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের লালন শাহ হলের পকেট গেটে গড়াই পরিবহন সার্ভিসের বাস আটকে দিয়ে প্রতিবাদে গেলে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে ৪ জন শিক্ষার্থী আহত হয়। পরে আহতদের ক্যাম্পাসের মেডিকেলে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকেলে গড়াই পরিবহন সার্ভিসের একটি বাসযোগে যশোর থেকে ক্যাম্পাস আসার পথে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের কয়েকজন শিক্ষার্থীকে শার্টের কলার ধরে হেনস্তা করার অভিযোগ উঠেছে বাস হেলপারের বিরুদ্ধে।

শিক্ষার্থীরা বলেন, হেনস্তার ঘটনা ক্যাম্পাসে ছড়িয়ে পড়লে বাস অবরোধের জন্য প্রথমে বিশ্ববিদ্যালয় গেটে অবস্থান নেয় বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা। পরে, আমরা ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদেরকে বাস থেকে নিয়ে আসার জন্য শেখপাড়া বাজারে গেলে বাস পরিবহন শ্রমিক ও স্থানীয় লোকজন আমাদের ওপর হামলা করে। এ সময় আমাদের হাতে কোনোরকম লাঠি বা কোনো কিছুই ছিল না। কিন্তু তারা আগে থেকেই হেলমেট পড়ে হাতে লাঠি, দা, ইট-পাথরসহ বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে আমাদের ওপর চড়াও হয়ে অতর্কিত হামলা চালিয়েছে।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের পাল্টা অভিযোগ, ক্যাম্পাসের শিক্ষার্থীরা শেখপাড়া বাজারে এসে দোকানপাট ভাংচুর করেছে‌।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে আরও জানা যায়, বাস পরিবহন শ্রমিক ও স্থানীয় লোকজন শেখপাড়া বাজারে মাইকিং করে লোকজন জড়ো করে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রস্তুতি নিয়েছে। কয়েক দফায় শিক্ষার্থীদের ওপর ইট পাটকেল নিক্ষেপ করতেও দেখা গেছে।

রাত দশটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা স্থানীয়দের সাথে মুখোমুখি অবস্থান গেলেও শাখা ছাত্রলীগের হস্তক্ষেপে সবাইকে হলের ভিতর প্রবেশ করিয়ে দেওয়া হয়। এ দিকে, স্থানীয় লোকজন রাত সাড়ে নয়টা থেকে প্রায় দু-ঘণ্টা কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। পরে পুলিশ প্রশাসন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডির হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণ আসে এবং অবরোধ তুলে দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমাদের প্রশাসন এবং প্রক্টরিয়াল বডি কাজ করে যাচ্ছে। এ ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা যাতে পুনরাবৃত্তি না ঘটে এজন্য এ সমস্যার সুষ্ঠু সমাধান করা হবে। বারবার আমাদের শিক্ষার্থীরা হেনস্থা কেন হবে, আমরা প্রাথমিকভাবে চাচ্ছি বিষয়টা সমাধান করতে যাতে জিনিসটা আর সামনে না আগায়। আমরা ইবি ও শৈলকূপা থানার ওসিদের সাথে আলোচনা করছি যাতে একটা সমাধানে যাওয়া যায়।

Comments

comments

Close