আজ: ২২শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২১শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি, রাত ১:৪৩
সর্বশেষ সংবাদ
জেলা সংবাদ, প্রধান সংবাদ নাপা সিরাপের বিষক্রিয়ায় জ্বরে আক্রান্ত দুই শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ

নাপা সিরাপের বিষক্রিয়ায় জ্বরে আক্রান্ত দুই শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ১১/০৩/২০২২ , ৫:৩৮ অপরাহ্ণ | বিভাগ: জেলা সংবাদ,প্রধান সংবাদ


ই এম আসাদুজ্জামান আসাদ:

জ্বরের (নাপা) সিরাপ খেয়ে সাত বছর ও পাঁচ বছর বয়সী সহোদর দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলার দূর্গাপুরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলো- ইয়াসিন খান (৭) ও মোরসালিন খান (৫)। উভয়েই উপজেলার দূর্গাপুর গ্রামের ইটভাটা শ্রমিক সুজন খানের ছেলে। ইয়াসিন খান স্থানীয় দূর্গাপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেণির শিক্ষার্থী।

জানা যায়, লিমা-সুজন দম্পত্তির এই দুটি ছেলে সন্তানই ছিল। দুই সন্তানের মৃত্যুতে পরিবারের পাশাপাশি শোকের ছায়া নেমে আসে এলাকাজুড়ে।

পরিবারের সদস্যরা জানায়, গত দুই দিন যাবত ছোট ছেলে মোরসালিন খানের শরীরে জ্বর ওঠে। এর আগে থেকেই বড় ছেলে ইয়াসিন খানেরও জ্বর ছিল। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শিশুদের মা লিমা বেগম তার শাশুড়িকে বাড়ির পাশের বাজারে মাঈন উদ্দিনের “মা ফার্মেসী” থেকে নাপা সিরাপ আনতে পাঠান। তাৎক্ষণিক তিনি নাপা সিরাপ এনে দুই নাতির মায়ের কাছে দেন। এ সময় লিমা বেগম শিশু দুটিকে নাপা সিরাপ খাওয়ান। ঔষধ খাওয়ানোর কিছুক্ষণ পরই দুই শিশুই বমি করে এবং অস্বস্তি বোধ করে। অবস্থার অবনতি হলে তাদেরকে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পর উন্নত চিকিৎসা জন্য জেলা সদর হাসাপাতালে পাঠালে চিকিৎসকরা প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে রাতেই বাড়ি পাঠিয়ে দেন।

বাড়িতে নিয়ে আসার পর রাত ৯টায় বড় ভাই ইয়াসিন খানের মৃত্যু হয় এবং রাত সাড়ে ১০টায় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে ছোট ভাই মোরসালিন খানও।

এদিকে, ঘটনার পর থেকেই ওই “মা ফার্মেসী”র মালিক মাঈন উদ্দিন পলাতক রয়েছে। তবে সিরাপটির মোড়কে ২০২৩ সাল পর্যন্ত মেয়াদ রয়েছে।

এ বিষয়ে আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রার্প্ত কর্মকর্তা আজাদ রহমান জানান, রাত ১টায় শিশু দুটির মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ঔষধের সিরাপটি জব্দ করা হয়েছে।

Comments

comments

Close