আজ: ২২শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২১শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি, রাত ১২:৩৬
সর্বশেষ সংবাদ
জেলা সংবাদ, প্রধান সংবাদ মাধবপুরে দূষিত বর্জ্য ও ময়লা ফেলায় সোনাই নদী এখন খালে পরিণত

মাধবপুরে দূষিত বর্জ্য ও ময়লা ফেলায় সোনাই নদী এখন খালে পরিণত


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ০৯/০৩/২০২২ , ৮:১৩ অপরাহ্ণ | বিভাগ: জেলা সংবাদ,প্রধান সংবাদ


নাহিদ মিয়া: হবিগঞ্জের মাধবপুরে সোনাই নদীতে দূষিত বর্জ্য ও ময়লা আর্বজনা ফেলায় নদী এখন খালে পরিণত হয়ে অস্তিত্ব সংকটে পড়েছে। নদীর এই করুণ অবস্থা দেখার যেন কেউ নেই। মাধবপুর পৌরসভার বাজারে প্রতিদিন বিভিন্ন প্লাস্টিক সামগ্রী দূষিত বর্জ্য ও পচা জিনিসপত্র নদীতে ফেলে যুগ যুগ ধরে নদী ভরাট চলছে। এতে নদীর পাড় ভরাট হয়ে এখন ছোট খালে পরিণত হয়েছে। পরিবেশবিদরা বলছেন, এ অবস্থা চলতে থাকলে মাধবপুর সোনাই নদী এক সময় মরা নদীতে পরিণত হবে।

নদী ভরাটের পাশাপাশি নদীর জায়গা দখল করে দু’পাড়ে গড়ে উঠেছে অবৈধ স্থাপনা। দীর্ঘদিন সোনাই নদী খনন ও অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ না করায় নদীর এই করুণ দশা। নদী ভরাট হয়ে পড়ায় এখন সোনাই নদীতে পানিপ্রবাহ কমে গেছে। শুষ্ক মৌসুমে নদীতে পানি থাকায় নদী পাড়ের কৃষকরা বোরো চাষাবাদ করতে পারছে না। এক সময় সোনাই নদী দিয়ে নদীপথে অনেক নৌযান চলাচল করত। এর তলদেশ ভরাট হওয়ায় এ পথে নৌযান চলাচল করতে পারছে না।

মাধবপুরের পরিবেশকর্মী সাব্বির হাসান বলেন, সোনাই নদীকে ঘিরে মাধবপুরে ঐতিহ্যবাহী বাজার গড়ে উঠেছে। এক সময় ব্যবসায়ীরা নদীপথেই পণ্য সামগ্রী আনা-নেওয়া করত। ঢাকা সিলেট মহাসড়কের পাশে নদীর অবস্থান থাকায় সড়ক পথ ও নদীপথের যোগাযোগ ব্যবস্থা খুবই সহজ ছিল, কিন্তু কালের গর্ভে  মাধবপুর সোনাই নদী কোন সংস্কার না করায় আজ সোনাই নদী মরতে বসেছে। বাজারের ব্যবসায়ীরা প্রতিদিন এখন নদীতে ময়লা ফেলে নদী দুষণ ও ভরাট করছে। ময়লা ফেলার জন্য পৌরসভার পক্ষ থেকে একটি নিদিষ্ট স্থান করা হলে নদীকে বাঁচানো সম্ভব।

মাধবপুর পৌরসভা নির্বাহী প্রকৌশলী শহীদুল ইসলাম জানান, মাধবপুর পৌরসভার নিজস্ব কোনো ডাম্পিং স্টেশন নেই। তবে ময়লা-আর্বজনা ফেলার জন্য স্যানিটারি ফিল্ড করার জন্য জমি দেখা হচ্ছে। জমি ও সরকারি বরাদ্দ ফেলে মাধবপুর পৌরসভার সকল বর্জ্য ডাম্পিং স্টেশনে ফেলা হবে। এতে পরিবেশের কোনো দূষণ হবে না।

Comments

comments

Close