আজ: ১৭ই জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ৩রা মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৪ই জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি, দুপুর ১২:৫৫
সর্বশেষ সংবাদ
খেলাধূলা জমজমাট ক্লাসিকো শেষে সুপারকোপার ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদ

জমজমাট ক্লাসিকো শেষে সুপারকোপার ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদ


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ১৩/০১/২০২২ , ১২:৪৩ অপরাহ্ণ | বিভাগ: খেলাধূলা


শামসুল আলম সবুজ :
কার্লো আনচেলত্তি রিয়ালের ডাগআউটে আসার পর থেকে দুর্দান্ত ছন্দে আছে লস ব্লাঙ্কোরা। আর বার্সার লিজেন্ড জাভি যখন কোচ হিসেবে দলে আসলেন তখন থেকেই রীতিমতো ধুঁকছে ইউরোপের এলিট ক্লাবটি। তাই এবারের এল ক্লাসিকোতে রিয়াল মাদ্রিদ পরিস্কার ফেভারিট ছিল, সেটা বার্সার ঘোর সমর্থকও মেনে নিবেন। পুনর্গঠনের মধ্য দিয়ে যাওয়া এক দল আর উড়তে থাকা কোনো দলের লড়াই নিয়ে যে এতটা আগ্রহ তাঁর মূলেই তো রয়েছে দুই দলের ঐতিহ্যবাহী এল ক্লাসিকোর ঝাজ। যার ফলে তুলনামূলক কম শক্তির দল নিয়েও শেষপর্যন্ত সমানে সমান খেলে গেছে জাভির দল। আর অতিরিক্ত সময়ের গোলে তাঁদেরকে হারিয়ে নিজেদের অভিজ্ঞতার দাম বুঝিয়ে দিয়েছেন করিম বেনজেমা-লুকা মদরিচরা।
কিং ফাহাদ ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামে প্রথমার্ধে ১-১ গোলের সমতায় বিরতিতে যায় দুই দল। দ্বিতীয়ার্ধেও একটি করে গোল করে রিয়াল ও বার্সা। ফলে নির্ধারিত সময়ের খেলা শেষ হয় ২-২ সমতায়। এরপর এক্সট্রা সময়ে রিয়ালের সাথে আর তাল মেলাতে পারেননি গাভি-ফাতিরা। ৯৮ মিনিটে ফেদে ভালভার্দের লক্ষ্যভেদে ফাইনালের টিকিট পেয়ে যায় মাদ্রিদিস্তারা।
সুপারকোপার সেমিফাইনালে শুরু থেকে বলের দখল নিতে থাকে বার্সেলোনা। আর কাউন্টার নির্ভর খেলা উপহার দেয় রিয়াল মাদ্রিদ। বয়সে তরুণ হলেও খেলায় মুন্সিয়ানা দেখায় গাভি-ডি ইয়ংরা। সব ধরনের পরিসংখ্যানে এগিয়ে থাকা কাতালানরা গোলবারের সামনে গিয়ে খেই হারিয়ে ফেলেছে। ম্যাচের ২৫ মিনিটের মাথায় ভিনিসিয়াস জুনিয়র গোল করে রিয়ালকে লিড এনে দেন। তবে বিরতির একটু আগে লুক ডি ইয়ংয়ের লক্ষ্যভেদে তাঁদেরকে ধরে ফেলে বার্সেলোনা।
সেকন্ড হাফের ৭২ মিনিটে ফ্রেঞ্চ তারকা করিম বেনজেমার শট ফিরিয়ে দেন বার্সা গোলরক্ষক মার্ক আন্দ্রে টার স্টেগান। ফিরতি বল ধরে আবার শট নেন দানি কারভাহাল। সেটাও ঠেকিয়ে দেন জার্মান গোলরক্ষক। তবে বল নিয়ন্ত্রণে নিতে না পারায় তা আবার চলে যায় বেনজেমার কাছে। এবার আর কোনো ভুল করেননি দারুণ ফর্মে থাকা এই ফরোয়ার্ড। পিছিয়ে পড়া বার্সা আনসু ফাতির হেডে আবারও রিয়ালকে ধরে ফেলে। ৮৩ মিনিটে বদলি নামা স্প্যানিশ তরুণ ফাতির মাথা ছুঁয়ে বল জালে আশ্রয় নিলে ২-২ গোলের সমতায় ৯০ মিনিটের খেলা শেষ হয়।
অতিরিক্ত সময়েও সমানতালে খেলছিল দুই দল। কিন্তু এক্সট্রা সময়ের অষ্টম মিনিটে কাউন্টার অ্যাটাক থেকে গোল করে বার্সাকে স্তব্ধ করে দেন বদলি নামা ফেদে ভালভার্দে। এতে করে ফাইনালে পৌঁছানোর পাশাপাশি এল ক্লাসিকোতে ১০০তম জয় পেল গ্যালাকটিকোসরা। ম্যাচ জিতলেও প্রতিপক্ষকে কৃতিত্ব দিতে ভোলেননি আনচেলত্তি। ম্যাচ শেষে তিনি বলেনঃ সত্যি বলতে কি, বার্সা খুব ভালো খেলেছে এবং তাঁদের অনেক গ্রেট খেলোয়াড় আছে।

Comments

comments

Close