আজ: ৬ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২রা জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি, রাত ৮:৪০
সর্বশেষ সংবাদ
জেলা সংবাদ মান্দায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ আ’লীগ প্রার্থীর

মান্দায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ আ’লীগ প্রার্থীর


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ২৪/১১/২০২১ , ১১:৫৩ অপরাহ্ণ | বিভাগ: জেলা সংবাদ


নওগাঁ প্রতিনিধি : আগামী ২৮নভেম্বর তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে নওগাঁর মান্দা উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রার্থীরা ব্যস্ত প্রচার-প্রচারণায়। অন্যদিকে প্রার্থীদের অভিযোগেরও যেন অন্ত নেই। উপজেলার ৬নং মৈনম ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সামন্ত কুমার সরকার তার নিকটতম প্রতিদন্দী আওয়ামী লীগের বিদ্রোর্হী (আনারস মার্কার) প্রার্থী  ইয়াছিন আলীর বিরুদ্ধে ভোটারদের মিনিষ্টার কোম্পানির ছাতা ও টাকা দিয়ে ভোট কেনাসহ তার কর্মী-সমর্থকদের ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগে তুলেছেন। অন্যদিকে বিদ্রোর্হী প্রার্থী ইয়াছিন আলী নৌকার প্রার্থীর বিরুদ্ধেই তুলেছেন অভিযোগের আঙ্গুল।

নওগাঁর মান্দা উপজেলার মৈনম ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী সামন্ত কুমার সরকার বিদ্রোহী প্রার্থী ইয়াছিন আলী রাজার বিরুদ্ধে নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে মঙ্গলবার বিকেলে স্থানীয় মৈনম বাজারে আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আনারস প্রতীকের প্রার্থী ইয়াছিন আলী ভোটারদের মিনিষ্টার কোম্পানির ছাতা ও ৩০০টাকা দিয়ে ভোটাদের ভোট কেনার চেষ্টা করছে। সেই সাথে তার কর্মী-সমর্থকদের ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছেন। এবিষয়ে গত ২১নভেম্বর জেলা প্রশাসক,পুলিশ সুপার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো বলেন, অভিযোগ করার তিন দিন পেরিয়ে গেলেও প্রশাসন কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। তিনি যে ছাতা ও টাকা দিয়ে প্রলোভন দেখিয়ে ভোটারদের কাছে থেকে ভোট কেনার পায়তারা করছেন তার প্রমানসহ অভিযোগ জানিয়েছি বিভিন্ন দপ্তরে কিন্তু তবুও যথাযত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছেনা। এত কিছু প্রমাণ থাকার পরও কেন কোন ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছেনা বিষয়টি খুব দু:খজনক বলে মনে করছি। তাই অনুরোধ দ্রুত আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের। নইলে যে কোন সময় বড় ধরনের সংঘর্ষ ঘটে যেতে পারে।

অন্যদিকে সকল অভিযোগ অস্বীকার করে আওয়ামী লীগের বিদ্রোর্হী প্রার্থী ইয়াছিল আলী রাজা বলেন, নৌকার প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকরাই আমাকে নানা ভাবে ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন। নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় বাঁধা দিচ্ছেন। এমনকি গত দুই দিন আগে আমার ছেলে ও আমার সমর্থকদের মারধর করেছে। যার কারনে প্রশাসনের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। আমাকে নির্বাচন থেকে সড়ে যেতে নানাভাবে হুমকি-ধামকি দিয়ে যাচ্ছে নৌকার প্রার্থী ও তার বাহিনী।

তিনি আরো বলেন, আমি ২০০৫সাল থেকে টানা তিনবার চেয়ারম্যান। এলাকার জনগন আমাকে প্রতীক হিসেবে নয় ব্যক্তি হিসেবেই ভোটের মাধ্যমে জয়যুক্ত করবেন বলে বিশ্বাস করছি। তাই সতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিয়েছি।  যেখানে আমার প্রচার-প্রচরণায় নানা ভাবে ভয়ভিতি দেখাচ্ছে, হামলা করছে। সেখানে কিভাবে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা-বানোয়াট ও ভীত্তিহীন অভিযোগ করে। এমন অভিযোগ মেনে নেয়ার মত নয়। আমার এক ছেলে মিনিষ্টার কোম্পানিতে চাকুরি করে। যার কারনে হয়তো আশে- পাশের কয়েকজনকে ছাতা দিয়েছে। এটার সাথে ভোট কেনার কোন সম্পর্ক নেই। আর কাকে কাকে ছাতা বা টাকা দেয়া হয়েছে এগুলোর কোন সত্যতা নেই।

এ বিষয়ে মান্দা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ( ইউএনও ) মোঃ আবু বক্কর সিদ্দিক জানান, উভয় পক্ষই অভিযোগ দিয়েছেন।  তাদের দুই পক্ষকেই সতর্ক করা হয়েছে। আর যে সব অভিযোগ পেয়েছি সেগুলোর সত্যতা পেলে অবশ্যই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ উপজেলার মোট ১৪টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত ১৪জন, আওয়ামী লীগের বিদ্রোর্হী ( সতন্ত্র) প্রার্থী ২২জন,  বিএনপি সমর্থিত সতন্ত্র প্রার্থী ১৪জন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী ৭জন, জাতীয় পার্টি সমর্থিত প্রার্থী ৬জনসহ মোট ৯৩জন চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্বাচনে লড়ছেন।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (১২নভেম্বর) রাত সাড়ে ৭টার দিকে মান্দা উপজেলার সতিহাট বাজারে গণেশপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হানিফ উদ্দিন মন্ডল ও বিএনপি সমর্থিত আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী শফিকুল ইসলাম বাবুল চৌধুরীর দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে দুই পক্ষের ১০ জন আহত হয়। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত  বিএনপি সমর্থিত কর্মী এমরান হোসেন রানাকে উদ্ধার করে প্রথমে নওগাঁ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল ভর্তি করা হয়। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ওই দিন রাতেই তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে সাতদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর বৃহস্পতিবার (১৮নভেম্বর)  ভোরে তিনি মারা যান।

Comments

comments

Close