আজ: ২০শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, ৬ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি, রাত ৮:৩৪
সর্বশেষ সংবাদ
চিত্র বিচিত্র হঠাৎ রাজ গোখরা বা শঙ্খচূড়ের দেখা

হঠাৎ রাজ গোখরা বা শঙ্খচূড়ের দেখা


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ০৯/১০/২০২১ , ৮:৪৩ অপরাহ্ণ | বিভাগ: চিত্র বিচিত্র


সাতছড়ি জঙ্গলে চশমা পরা হনুমানের পিছুপিছু যেতে যেতে হঠাৎ আমরা কোন কিছুর একটি শব্দ টের পাই খেয়াল করতে দেখি আমার বরাবর ৫ ফুট দূরে রাজগোখরা মাথা তুলে দাঁড়িয়ে আছে। এমন একটি পরিস্থিতির জন্য আমরা প্রস্তুত ছিলাম না। কথিত আছে যে বাঘ এবং রাজগোখরা সামনে কখন পড়তে হয় না। আমার সাথে দুজন ভয়ে ছবি তুলেনাই, সাপটি আমাদেরকে ২ মিনিট সময় দিয়েছে তারমধ্যে যা ছবি তুলে নিয়েছি।
রাজ গোখরা হচ্ছে পৃথিবীর সর্ববৃহৎ বিষধর সাপ। যার দৈর্ঘ্য সর্বোচ্চ ১৮.৫ ফুট পর্যন্ত হতে পারে। এই সাপ খুব দ্রুত চলতে পারে এবং ক্ষেপে গেলে চার থেকে পাঁচ ফুট মাথা উঁচিয়ে দাঁড়িয়ে যেতে পারে। ডিমের সময় মানুষের উপস্থিতি টের পেলে স্ত্রী সাপটি প্রচন্ড ক্ষেপে যায় এবং ছোবল দেওয়ার জন্য অনেকটুকু পথ মানুষকে অনুসরণ করে।
রাজ গোখরার একটা কামড়ে বিশাল আকৃতির প্রাণী হাতি মরে যায়। রাজ গোখরা বিষের পরিমাণ এবং তীব্রতা এতই বেশি যে এক ছোবলে যে পরিমাণ বিষ বের হয় তাতে ২০ জন মানুষের মৃত্যু সম্ভব। রাজ গোখরার একটি সাধারণ দংশন-ই যেকোনো মানুষকে ৩০ মিনিটের মধ্যে মেরে ফেলার জন্য যথেষ্ট।
এটি মূলত সম্পূর্ণ দক্ষিণ এশিয়ার বনাঞ্চল জুড়ে দেখা যায়। ইংরেজি নামে কোবরা শব্দটি থাকলেও এটি কোবরা বা গোখরা নয়। রাজ গোখরার প্রধান খাবার হলো অন্যান্য সাপ। যেসকল সাপ এটি ভক্ষণ করে তার মধ্যে আছে র‌্যাট সাপ, এবং ছোট আকৃতির অজগর। এছাড়াও অন্যান্য বিষধর সাপও এটি ভক্ষণ করে। পুরুষ সাপটির থেকে স্ত্রী সাপটি আকারে বড় হয় কখনো কখনো মিলনের পর স্ত্রী সাপ পুরুষ সাপটিকে খেয়ে ফেলে।
বি:দ্র: সাধারণত আমিও জানতাম রাজগোখরা সুন্দরবন ছাড়া দেখা যায় না কিন্তু সিলেটে রাজগোখরা পাবো এটা আমিও কল্পনাও করতে পারিনাই। যারা সিলেটের জঙ্গলে যাচ্ছেন বা যাবেন অবশ্যই জঙ্গলে প্রবেশ করার সময় বনের প্রশিক্ষিত গাইড নিয়ে জঙ্গলে প্রবেশ করবেন। রাজ গোখরার মতন সাপ যে জঙ্গলে আছে ওই জঙ্গলে চলাফেরা সাবধানে করতে হবে।
ছবি ও লেখা: নাফিস আমিন , চিত্রগ্রাহক , দৈনিক মতপ্রকাশ । 

Comments

comments

Close