আজ: ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার, ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২২শে সফর, ১৪৪৩ হিজরি, সকাল ৮:২৫
সর্বশেষ সংবাদ
জেলা সংবাদ ২৬নং ওয়ার্ডে দুস্থদের মাঝে জাগরণী স্পোর্টিং সংঘের ত্রান বিতরণ

২৬নং ওয়ার্ডে দুস্থদের মাঝে জাগরণী স্পোর্টিং সংঘের ত্রান বিতরণ


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ অনলাইন | প্রকাশিত হয়েছে: ২০/০৭/২০২১ , ১০:০৩ অপরাহ্ণ | বিভাগ: জেলা সংবাদ


বর্ণালী জামান বর্ণা

করোনা মহামারির তৃতীয় ঢেউ মোকাবেলায় বিপদগ্রস্থ অসহায়, দুস্থ ও নিম্নআয়ের মানুষের মাঝে রংপুর নগরীর ২৬ নং ওয়ার্ডে জাগরণী স্পোর্টিং সংঘের পক্ষ থেকে ত্রান বিতরণ  করা হয়েছে।
সোমবার (১৯ জুলাই) সকাল সাড়ে এগারোটায় নগরীর ২৬ নং ওয়ার্ড এর আওতাধীন রবার্টসনগন্জ্ঞ,মন্ডলপাড়া, পাটবাড়ি রেললাইনের বস্তিতে জাগরণী স্পোর্টিং সংঘের তরুনরেরা নিজ উদ্যোগে ও নিজ অর্থে প্রায় দেড় শতাধিক দুস্থ অসহায় জনগোষ্ঠীর মাঝে ত্রান বিতরণ করেছে।

উক্ত কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন জাগরণী স্পোর্টিং সংঘের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রিয়াজ খান রুবেল,সাধারণ সম্পাদক নওসাদ আলম,সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ ইসলাম, সাধারণ সাংগঠনিক আদিল, কোষাধ্যক্ষ শাহজাদা, ত্রাণ বিতরণের দায়িত্বে বাবলা,ক্রীড়া সম্পাদক ইমরান, রহিজ, প্রিন্স, সাগর,রাজ প্রমূখ।

এছাড়াও জানা গেছে, জাগরণী স্পোর্টিং সংঘের কর্মসূচিতে ২০-৩০ জন তরুনদের প্রতিমাসে ২০ টাকা করে সঞ্চয়কৃত অর্থের সম্বনয়ে ২-৩ মাস পর পর সামাজিক সেচ্ছাসেবী কার্যক্রম করে থাকেন তারা। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে রক্তদান, মাস্কবিতরণ, রমজানে দুস্থদের মাঝে ইফতার বিতরণ, ত্রাণ বিতরণ, শীতকালীন বস্ত্র বিতরণ, বৃক্ষরোপণ, জীবানুরোধ সামগ্রী বিতরণ, দুস্থ শিক্ষার্থীদের মাঝে আর্থিক সহয়তা প্রদান, বোর্ড পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষার সরঞ্জাম উপহার, সচেতনমূলক পোষ্টার লাগানো, ঈদ উপহার, খেলাধুলাসহ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান কর্মসূচি পালন করে আসছে।
সামাজিক কার্যক্রম প্রসঙ্গে জাগরণী স্পোর্টিং সংঘের সভাপতি রিয়াজ খান রুবেল বলেন, জয় হোক নিরিহ মানুষের, মাধ্যম হোক জাগরণী স্পোর্টিং সংঘের এই স্লোগানকে সামনে রেখে লক্ষকে অটুট করে  এগিয়ে যেতে চাই। ২০১০ সাল থেকে  ব্যতিক্রমী একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হিসেবে স্বেচ্ছায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর লক্ষ্যে এই সংগঠনের কাজ শুরু করেছি। নিজ ২৬ নং ওয়ার্ড আওতাধীন বেশকয়েকটি এলাকা নিয়ে এবং ৫০ জন তরুণ-যুবকর সম্বনয়ে এ সংগঠন গড়ে তুলেছি। এরমধ্যে কর্মে জড়িত ২০-৩০ জনের টাকা জমা করে এই সংগঠনের সকল তরুনরাসহ নিজ উদ্যোগে স্বেচ্ছায় দরিদ্র মেয়ের বিয়েতে সাহায্য করা, গরিব মেধাবী শিক্ষার্থীদের মধ্যে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করা, বিনা মূল্যে পড়ানো, কম্বল বিতরণ, খেলাধুলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, কুইজ প্রতিযোগিতা,  মহান বিজয় দিবস ও স্বাধীনতা দিবস পালন করাসহ দরিদ্রদের জন্য সাহায্যসহ অন্যান্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে থাকি।
এই সংগঠনে রয়েছে একটি কমিটি গঠন করেছি কিন্তু আমাদের বসার জায়গা এখনো জোটেনি। কোনা কর্মসূচি উদ্যোগ বা প্রতিদিন ২ ঘন্টা করে মতবিনিময় করার মতো জায়গা না থাকায় রবার্টসনগন্জ্ঞ খেলার মাঠে বসে সময় দিতে হয়। তবে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি একটি ভাড়া করা  দোকান নিবো সেটিই হবে আমাদের জাগরণী স্পোর্টিং সংঘের  অফিস। ভবিষ্যতে শুধু একটি ওয়ার্ড নয় ৩৩ টি ওয়ার্ডের নিম্ন – মধ্যবিত্তদের পাশে দাঁড়াতে পারি।

সংগঠনের সাধারন সম্পাদক নওসাদ আলম জানান , তাঁদের পাশে সমাজের বিত্তবান মানুষ এসে দাঁড়ালে হয়তো আরও অনেক মানুষকে সেবা দিতে পারবেন।
কৌশলগত পরিকল্পনা প্রণয়নে সংগঠনের সদস্যদের জন্য দূরদর্শিতার মানবিকতার মুল্যবোধ জাগ্রত করা সংগঠনের একটি শক্তিশালী পদ্ধতি। একটি নতুন সংগঠন গড়ে তোলার সময় অথবা যখন একটি  বড় মাপের পরিবর্তনের উদ্যোগ গ্রহণ করে তখন এ অনুশীলনটি খুবই উপযোগী। সংগঠনের সমৃদ্ধির জন্য যে কোনো ধরনের পরিবর্তন আনতে হলে নেতৃত্বকে দূরদর্শী হতে হয়। সে নেতাই দূরদর্শী যিনি ভবিষ্যৎকে দেখতে পান, বিশ্লেষণ করতে পারেন এবং ফলাফল অর্জনে লক্ষ্য স্থির করতে পারেন।
এই মূল্যবোধের মাধ্যমেই সংগঠনের লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্যকে দৃঢ রেখে এগিয়ে নিয়ে যেতে চান তিনি।  সংগঠনকে সবচেয়ে বিশ্বাসযোগ্য, স্বচ্ছ ও বিশ্বস্ত এবং সক্রিয় সংস্থা হিসেবে শক্তিশালী করে সকলকে নিয়ে নিম্ন -মধ্যবিত্তের  উন্নয়ন সাধন করতে আগামীতে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাওয়ার আশ্বাস জানিয়েছেন তিনি।

এছাড়াও জনসাধারনকে করোনা মহামারি প্রসঙ্গে  সতর্ক করতে জাগরণী স্পোর্টিং সংঘের পক্ষ থেকে  সচেতনতামূলক পোষ্টার বিভিন্ন এলাকার দেয়ালে লাগিয়েছেন।

Comments

comments

Close
%d bloggers like this: