আজ: ১৫ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, ২রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৩রা রমজান, ১৪৪২ হিজরি, সকাল ৭:২৩
সর্বশেষ সংবাদ
আন্তর্জাতিক মিয়ানমার ইস্যুতে বৈঠক ডাকল আসিয়ান

মিয়ানমার ইস্যুতে বৈঠক ডাকল আসিয়ান


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ০৬/০৪/২০২১ , ১১:০০ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: আন্তর্জাতিক


সদস্য দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ না করার কারণে অতীতে সমালোচনার মুখে পড়লেও এবার মিয়ানমার ইস্যুতে জরুরি বৈঠকে বসতে যাচ্ছে অ্যাসোসিয়েশন অব সাউথ ইস্ট এশিয়ান নেশন্স (আসিয়ান)।
আসিয়ানের বর্তমান সভাপতি দেশ ব্রুনাই সোমবার জানায়, ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তায় সংস্থার জরুরি বৈঠকে অংশ নেওয়ার জন্য সদস্য দেশগুলোকে প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে। জাকার্তায় আসিয়ানের সচিবালয় অবস্থিত।

মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের পর দেশটির পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার জন্য ইন্দোনেশিয়া সদস্য দেশগুলোকে আগ্রহী করে তোলার চেষ্টা চালাচ্ছে। সাধারণত যেকোনও দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে মন্তব্য না করার নীতি অনুসরণ করে আসছে আসিয়ান।
যৌথ বিবৃতিতে ব্রুনাই ও মালয়েশিয়া মন্ত্রী এবং শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের জরুরি বৈঠকে বসার প্রস্তুত নিতে বলা হয়েছে। মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মুহিউদ্দিন ইয়াসিন ও ব্রুনাইয়ের সুলতান হাসান আল-বলাখিয়ার মধ্যে একটি বৈঠক অনুষ্ঠানের পর যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করা হয়।
যৌথ বিবৃতিতে জরুরি বৈঠকের কথা বলা হলেও কবে কখন তা অনুষ্ঠিত হবে তা পরিষ্কার করা হয়নি। দুই দেশই মিয়ানমারের বিক্ষোভকারীদের ওপর বর্বর হত্যাকাণ্ড ও দমনপীড়নের বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।
গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের পর সৃষ্ট অস্থিতিশীলতা ও চলমান রাজনৈতিক দমন-পীড়ন অবসানের লক্ষ্যে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। সোমবারও জান্তাবিরোধী বিক্ষোভ অব্যাহত ছিল। এদিন দেশটির বিভিন্ন শহরে বিক্ষোভের পর একসঙ্গে তালি বাজিয়ে প্রতিবাদকারীরা সামরিক সরকারের বিরোধিতা করেছেন।
এদিকে, স্থানীয় বাসিন্দারা রয়টার্সকে জানান, সামরিক সরকারবিরোধী আন্দোলনকারীদের আহ্বানে সাড়া দিয়ে ইয়াঙ্গুনের বিভিন্ন এলাকায় তালি বাজানো শুরু হয়। বিক্ষোভের নেতা এই থিনজার মং ফেইসবুকে এই তালি কর্মসূচি সম্পর্কে লিখেছেন, এই তালি আমাদের পক্ষ থেকে সংখ্যালঘু জাতিগুলোর সশস্ত্র সংগঠন এবং ইয়াঙ্গুনসহ মিয়ানারের জেন জেড তরুণদের প্রতি সম্মান জানানোর জন্য যারা এই বিপ্লবে লড়াই করছেন।
ফেসবুকে পাঁচ মিনিট ধরে তালি বাজানোর আহ্বান জানানো হয়েছিল।
১ ফেব্রুয়ারির অভ্যুত্থানের পর দেশটিতে জান্তাবিরোধী বিক্ষোভে অন্তত ৫৬৪ জনকে হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় একটি অ্যাক্টিভিস্ট সংস্থা। তারা জানিয়েছেন, নিহতদের মধ্যে ৪৭ শিশুও রয়েছে। সেনাবাহিনীর এসব নৃশংস হত্যাকাণ্ড ও দমন-পীড়নের পরও বিক্ষোভকারী প্রতিদিন রাজপথে নামছেন। সোমবারও মান্দালয়ে নিরাপত্তাবাহিনীর গুলিতে একজন নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে মিয়ানমার নাউ।

Comments

comments

Close
%d bloggers like this: