আজ: ১৪ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি, রাত ৯:৫৭
সর্বশেষ সংবাদ
সাহিত্য ২৫০তম মঞ্চায়নের অপেক্ষায় প্রশংসিত নাটক ‘লালজমিন’

২৫০তম মঞ্চায়নের অপেক্ষায় প্রশংসিত নাটক ‘লালজমিন’


পোস্ট করেছেন: অনলাইন ডেক্স | প্রকাশিত হয়েছে: ১০/১১/২০২০ , ৬:৫০ অপরাহ্ণ | বিভাগ: সাহিত্য


প্রশংসিত নাটক ‘লালজমিন’ এখন ২৫০তম মঞ্চায়নের অপেক্ষায়। মাইলফলক প্রদর্শনীটি হতে যাচ্ছে বুধবার গাইবান্ধায়, গাইবান্ধা পুলিশ লাইনে। পরদিন আরেকটি প্রদর্শনী হবে গাইবান্ধা থিয়েটারের আয়োজনে।
মান্নান হীরা রচনা ও সুদীপ চক্রবর্তী নির্দেশনায়, শূন্যন রেপর্টরি থিয়েটারের এই প্রযোজনায় একক অভিনয়ে আছেন মোমেনা চৌধুরী।
২০১১ সালের ১৯ মে নাটমন্ডলে নাটকটির প্রথম মঞ্চায়ন হয়। সেই থেকে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল ও বিদেশের মাটিতে ‘লালজমিন’ নিয়ে যান মোমেনা।
২৫০তম মঞ্চায়ন নিয়ে মোমেনা চৌধুরী বলেন, “আমার অভিনয় জীবনে অনেক বড় আনন্দের প্রাপ্তি। মন খারাপের বিষয় হলো কিছু সীমাবদ্ধতার কারণে এ আনন্দঘন মুহূর্তে দলের সব সদস্যদের পাচ্ছি না। কিছু সীমাবদ্ধতার কারণে শূন্যনের মাত্র পাঁচজন সদস্য আজ গাইবান্ধা যাচ্ছি।”
“আমার খুব ইচ্ছে ছিল দলের সব সদস্যদের নিয়ে আমার নিজের জেলা বগুড়াতে ২৫০তম প্রদর্শনী করব। এমনই প্রস্তুতি ছিল। কিন্তু তার আগেই হঠাৎ দুটি প্রদর্শনীর আমন্ত্রণ চলে আসে।”
তিনি নাটকটির সঙ্গে যুক্ত সবাইকে ধন্যবাদ জানান।
মোমেনা আরও বলেন, “বাংলাদেশ সরকারে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় শূন্যন রেপর্টরি থিয়েটারকে বিদেশ এবং দেশের বিভিন্ন জেলা-উপজেলা ও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ‘লালজমিন’ মঞ্চায়নের লক্ষ্যে অনুদান দিয়ে সহযোগিতা করে আমাদের উৎসাহ বহুগুণ বাড়িয়ে দিয়েছে। কৃতজ্ঞতা জানাই বিশিষ্ট নাট্যব্যক্তিত্ব আসাদুজ্জামন নূর এমপিকে। বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রকেও আমাদের এই যাত্রায় পাশে পেয়েছি। আব্দুল্লাহ আবু সায়ীদ স্যারের উদ্যোগে বিভিন্ন কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘লালজমিন’ মঞ্চায়নের সুযোগ হয়েছে। কৃতজ্ঞতা বাংলাদেশ পুলিশের ডিআইজি হাবিবুর রহমানের কাছে। বিশেষ কৃতজ্ঞতা মহামান্য রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদের কাছে। তিনি গত বছরের ১৬ এপ্রিল বঙ্গভবনে ‘লালজমিন’ প্রদর্শনের সুযোগ করে দিয়েছেন। কৃতজ্ঞতা আমার আরণ্যক নাট্যদলের কাছে। সর্বোপরি বাংলাদেশের সকল জেলা প্রশাসক, পুলিশ লাইন, শিল্পকলা একাডেমি, বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন ও ‘লালজমিন’ নাটকের দর্শকদের কাছে কৃতজ্ঞতা জানাই।”
নাটকটির গল্প মুক্তিযুদ্ধের একটি খণ্ডচিত্রের বয়ান। মুক্তিযুদ্ধে একজন কিশোরীর অংশগ্রহণ, গল্পের অগ্রগতির সঙ্গে সঙ্গে যুদ্ধের ভয়াবহতা, মেয়েটির ত্যাগ— সবশেষে স্বাধীনতা অর্জন; দর্শকদের এক নতুন অভিজ্ঞতার সম্মুখে দাঁড় করিয়ে দেয় ‘লালজমিন’।

Comments

comments

Close
%d bloggers like this: