আজ: ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার, ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২রা সফর, ১৪৪২ হিজরি, রাত ৩:০২
সর্বশেষ সংবাদ
আন্তর্জাতিক ৭৮৬ লেখা ট্যাটু দেখে ভারতে কাটা হলো মুসলিম যুবকের হাত

৭৮৬ লেখা ট্যাটু দেখে ভারতে কাটা হলো মুসলিম যুবকের হাত


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ১১/০৯/২০২০ , ৪:৪৮ অপরাহ্ণ | বিভাগ: আন্তর্জাতিক


নির্যাতন করা হয়েছে এবং তার ডান হাত করাত দিয়ে কেটে দেয়া হয়েছে।

জানা গেছে, নির্যাতনের শিকার ওই যুবকের নাম আখলাক। তিনি পেশায় একজন নাপিত। তার বাড়ি উত্তরপ্রদেশের সাহারানপুর শহর থেকে ২ কিলোমিটার দূরে নানৌতাতে। গত ২৩ আগস্ট তিনি হরিয়ানার পানীপথে গিয়েছিলেন কাজের সন্ধানে। যাওয়া পরে কয়েক মিনিট বিশ্রাম নিতে তিনি কিশানপুরা এলাকায় বসেছিলেন। এ সময় দু’জন লোক এসে তার সম্পর্কে খোঁজখবর নিতে শুরু করে। আখলাকের ভাই ইকরাম জানান, দু’জন লোক এসে তার নাম জিজ্ঞাসা করলেন। তার নাম শুনেই তারা তাকে মারধর শুরু করে। যার পরে আখলাককে আহত অবস্থায় রাস্তায় ফেলে রাখা হয়েছিল। পরে, যখন হামলাকারীরা চলে যায় এবং আখলাকের হুঁশ ফেরে, তখন তার তীব্র পিপাসা লেগেছিল এবং সে তার নিকটবর্তী দরজায় কড়া নেড়ে পানি চায়। কিন্তু, সে পারেনি যে বাড়ির লোকেরা সেই একই ব্যক্তি, যারা তাকে কয়েক মিনিট আগে মারধর করছিল। তারা তাকে টেনে ভিতরে নিয়ে যায় এবং লাঠি দিয়ে তাকে মারধর শুরু করে।

ইকরাম জানান, আখলাক তাকে বলেছেন যে, বাড়ির ভিতরে সেখানে চার পুরুষ এবং ২ জন মহিলা উপস্থিত ছিলেন যখন তাকে নির্মম নির্যাতন করা হয়েছিল। তারা আখলাকের ডান হাতে ৭৮৬ লেখা দেখে বলেছিল যে, এই লেখা থাকতে দেব না। এরপর তারা আখলাকের ডান হাত একটি চেইনসো (ভারী কাঠ কাটতে ব্যবহৃত ডিজেল চালিত করাত) দিয়ে কেটে ফেলে। ইকরাম বলেন, তার ভাইকে এমনভাবে মারধর করা হয়েছে যে তার দেহের প্রতিটি অংশে আঘাত রয়েছে। কয়েক ঘন্টা পরে, জ্ঞান ফিরলে আখলাক যখন নিজেকে রেলস্টেশনে পড়ে থাকতে দেখেন।

আখলাকের কাছ থেকে নাম্বার নিয়ে পানীপথ থেকে অজ্ঞাত এক ইকরামকে ফোন দিয়ে ঘটনার কথা জানান। তিনি বলেন, ‘আখলাককে রেলপথের উপরে ফেলে দেওয়া হয়েছিল এটি চিত্রিত করার জন্য যে, তিনি কোনও ট্রেন দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন।’ পরে, যখন আখলাককে পানিপথে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল, সেখানে উপস্থিত জিআরপি থানার এসআই বলওয়ান বলেছিলেন যে, এটি একটি ‘দুর্ঘটনার মামলা’। ইকরামের অভিযোগ, এসআই বালওয়ান অভিযুক্ত লোকদের থানায় ডেকেছিলেন কিন্তু তার সামনে প্রমাণ থাকা সত্ত্বেও তাদের গ্রেপ্তার না করেই যেতে দেন। এ বিষয়ে পানিপথের চাঁদনী বাগান থানায় একটি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, ভারতের অনেক মুসলমানই ৭৮৬ সংখ্যাটি মহান আল্লাহুর নাম বোঝাতে ব্যবহার করেন। ১৫ বছর বয়সে এই সংখ্যা আখলাক তার হাতে ট্যাটু করান।

Comments

comments

Close