আজ: ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার, ৩রা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১লা সফর, ১৪৪২ হিজরি, রাত ১০:২৭
সর্বশেষ সংবাদ
অর্থ ও শিল্প ব্যাংকিং খাত সাইবার হামলার শঙ্কামুক্ত

ব্যাংকিং খাত সাইবার হামলার শঙ্কামুক্ত


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ১০/০৯/২০২০ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: অর্থ ও শিল্প


দেশের তিনটি ইন্টারনেট প্রটোকলে (আইপি) থাকা ম্যালওয়্যার ভাইরাসটি অত্যন্ত সফলভাবে সরিয়ে ফেলা হয়েছে। এখন আর ইন্টারনেট সিস্টেমসের কোথাও ম্যালওয়্যার ভাইরাসের অস্তিত্ব নেই। ফলে দেশের ব্যাংকিং খাত আপাতত সাইবার হামলার শঙ্কামুক্ত।

এ কারণে সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের (বিসিসি) আওতায় গঠিত সাইবার ইনসিডেন্ট রেসপন্স টিমের (সার্ট) জারি করা সর্বোচ্চ সতর্কতা আপাতত প্রত্যাহার করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

ব্যাংকগুলো তাদের অনলাইন লেনদেন সফটওয়্যারের নিরাপত্তা ব্যবস্থার সন্তুষ্টি অনুযায়ী ধীরে ধীরে স্বাভাবিক লেনদেনে যেতে পারে। আন্তর্জাতিকভাবে ব্যাংকিং খাতেও সাইবার হামলার বিষয়ে জারি করা রেড অ্যালার্ট প্রত্যাহার করা হয়েছে। তবে সাধারণ সতর্কতা সংকেত থাকবে। বাংলাদেশেও এটি বহাল থাকবে।

এদিকে কয়েকটি বাণিজ্যিক ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীর সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, তারা আরও কিছুদিন সতর্কতা অব্যাহত রাখবে। এর মধ্যে অনলাইন লেনদেনের সফটওয়্যারের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও বাড়ানো হবে। পর্যায়ক্রমে তারা স্বাভাবিক লেনদেনে যাবে। তবে এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পরবর্তী নির্দেশনার অপেক্ষায় রয়েছে তারা।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক সূত্র জানায়, ভাইরাসটি সরিয়ে ফেলার তথ্য তারা পেয়েছে। এখন কেন্দ্রীয় ব্যাংকসহ সব বাণিজ্যিক ব্যাংকের অনলাইন লেনদেন সফটওয়্যারের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ধীরে ধীরে স্বাভাবিক লেনদেনে যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হবে। এ ব্যাপারে অচিরেই নতুন নির্দেশনা জারি করা হবে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের (বিসিসি) পরিচালক ও সার্টের প্রকল্প পরিচালক তারেক এম বরকতউল্লাহ বলেন, ম্যালওয়্যার ভাইরাসটি তিনটি ইন্টারনেট প্রটোকল (আইপি) থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে। এখন আর কোনো হুমকির আশঙ্কা নেই। আমরা আপাতত বিপন্মুক্ত।

সূত্র জানায়, ২৮ আগস্ট বাংলাদেশের ইন্টারনেট ব্যবস্থাপনায় ম্যালওয়্যার ভাইরাসটির অস্তিত্ব খুঁজে পায় সার্ট। সঙ্গে সঙ্গে তারা কেন্দ্রীয় ব্যাংকসহ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোতে এ তথ্য জানিয়ে দেয়। কেন্দ্রীয় ব্যাংক বাণিজ্যিক ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে অনলাইন লেনদেনে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকার নির্দেশ দেয়। এরপর এটিএম সেবাসহ সব ধরনের অনলাইন ব্যাংকিং সেবা সীমিত করা হয়।

এক ব্যাংকের এটিএম বুথে নিজস্ব কার্ড ছাড়া অন্য ব্যাংকের কার্ডে সব ধরনের লেনদেন সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়। একই সঙ্গে এটিএম বুথগুলোতে ব্যাংকিং সেবার ধরনও কমিয়ে দেয়া হয়। নগদ টাকা তোলা ছাড়া অন্য ব্যাংকের বা গ্রাহকের হিসাবে টাকা স্থানান্তরে লাগাম টানা হয়। এছাড়া ব্যাংকগুলো সব ধরনের অনলাইন, সুইফট, ন্যাশনাল পেমেন্ট সুইচ, বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেনে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়, যা আরও কিছু দিন বহাল রাখা হবে বলে ব্যাংকগুলোর সূত্রে জানা গেছে। ফলে ব্যাংকগুলোর এটিএম সেবা রাত ১১টা থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে।

বিসিসির সাইবার বিশেষজ্ঞরা ফরেনসিক ল্যাবে ব্যাপক অনুসন্ধান করে দেশের তিনটি আইপিতে ম্যালওয়্যার ভাইরাসের অবস্থান শনাক্ত করে। এর মধ্যে একটি ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডারে (আইএসপি) সাইবার হামলার ঘটনা ঘটেছে। তবে এতে তেমন কোনো ক্ষতি হয়নি। বুধবার ভাইরাসটি সফলভাবে সরিয়ে ফেলা সম্ভব হয়েছে।

বিশ্বব্যাপী আর্থিক খাতে সাইবার হামলা হতে পারে- মার্কিন বৈদেশিক গোয়েন্দা সংস্থা ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (এফবিআই) সাইবার ইউনিটের এমন সতর্কতা জারির পর বিশ্বব্যাপীও আর্থিক খাতগুলো সতর্ক অবস্থান নেয়।

Comments

comments

Close