আজ: ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার, ৩রা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১লা সফর, ১৪৪২ হিজরি, রাত ১১:০৩
সর্বশেষ সংবাদ
স্বাস্থ্য এক মাসের মধ্যে কম মৃত্যু, কমছে শনাক্তের হার

এক মাসের মধ্যে কম মৃত্যু, কমছে শনাক্তের হার


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ০৫/০৯/২০২০ , ২:৪৭ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: স্বাস্থ্য


দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে, যা গত প্রায় এক মাসের মধ্যে সবচেয়ে কম। পাশাপাশি নিশ্চিত রোগী শনাক্তের হারও কমছে।

গতকাল শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত আগের ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত হয়েছে এক হাজার ৯২৯ জন। এ সময় সুস্থ হয়েছে দুই হাজার ২১১ জন। বিকেলে সংবাদমাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি পাঠিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতির সর্বশেষ তথ্য জানানো হয়।

এর আগে ৭ আগস্ট করোনায় ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছিল। এরপর প্রতিদিনই মৃতের সংখ্যা ছিল ৩০-এর বেশি। তবে ১ ও ২ আগস্ট মৃতের সংখ্যা ছিল যথাক্রমে ২১ ও ২২। অন্যদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১৫ শতাংশের নিচে নেমে এসেছে। মোট শনাক্তের হার ২০ শতাংশের ওপরে থাকলেও আগের তুলনায় কমে এসেছে। গত ২৪ জুলাই পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ছিল ২০.০৪ শতাংশ। এরপর বাড়তে থাকে। ১৮ আগস্ট পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার দাঁড়ায় ২০.৪৮ শতাংশ। তারপর কমতে শুরু করে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১৪.৭৬ শতাংশ। এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ২০.০৪, মৃত্যুহার ১.৩৭ ও সুস্থতার হার ৬৭.২২ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় পরীক্ষা হয়েছে ১৩ হাজার ৭৩টি নমুনা। সব মিলিয়ে দেশে এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৬ লাখ পাঁচ হাজার ১১১টি। মোট শনাক্ত হয়েছে তিন লাখ ২১ হাজার ৬৬৫ জন। যাদের মধ্যে মারা গেছে চার হাজার ৪১২ জন ও সুস্থ হয়েছে দুই লাখ ১৬ হাজার ১৯১ জন।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, নতুন করে যে ২৯ জন মারা গেছেন তাঁদের মধ্যে ২২ জন পুরুষ ও সাতজন নারী। বয়স বিভাজনে ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে রয়েছেন একজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে তিনজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে তিনজন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের সাতজন ও ষাটোর্ধ্ব ১৫ জন। বিভাগ হিসাবে ঢাকা বিভাগে মৃত্যু হয়েছে ১৪ জনের, চট্টগ্রাম, খুলনা, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে দুজন করে, বরিশাল বিভাগে তিনজন ও রাজশাহী বিভাগে চারজন মারা গেছেন। ২৭ জন হাসপাতালে ও দুইজন বাড়িতে মারা গেছেন।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গতকাল সকাল নাগাদ কোয়ারেন্টিনে ছিলেন ৫২ হাজার ৪৭২ জন ও আইসোলেশনে ছিলেন ১৯ হাজার ৬৭৬ জন।

Comments

comments

Close