আজ: ২২শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার, ৮ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯শে জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি, সকাল ৮:০২
সর্বশেষ সংবাদ
রাজনীতি বিজয় দিবসের আগে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন

বিজয় দিবসের আগে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ০৩/১১/২০১৯ , ৯:৪৩ অপরাহ্ণ | বিভাগ: রাজনীতি


বিজয় দিবসের আগেই ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের দুই অংশের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। মেয়াদোত্তীর্ণ ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তর ও দক্ষিণ শাখার সম্মেলন করতে ফের নির্দেশ দেওয়ার পর ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

সূত্র জানায়, শনিবার রাতে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের গণভবনে গেলে তাকে এই নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের পর রোববার সকালে ১০-১২ ডিসেম্বরের মধ্যে সম্মেলন করতে মহানগর নেতাদের সময় বেঁধে দেন ওবায়দুল কাদের। আওয়ামী লীগ সূত্রে এসব তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।
এর আগে অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে দুই মহানগরের সম্মেলন করার নির্দেশ দেন। ১২ অক্টোবর দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ দুই মহানগর নেতা সাদেক খান ও শাহে আলম মুরাদকে ফোন করে জানিয়ে দেন।
ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শেখ বজলুর রহমান বলেন, রোববার সকালে ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে জেলহত্যা দিবসের শুভেচ্ছা জানানোর পর কয়েকজন শীর্ষ মহানগর নেতাকে কাউন্সিল করার নির্দেশ দেন ওবায়দুল কাদের। প্রথমে ১০-১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে কাউন্সিল করার কথা বললেও পরে তা কমিয়ে আরও আগে করার কথা বলেন তিনি।
সেখানে উপস্থিত একাধিক নেতা বলেন, প্রথমে সাদেক খান-মুরাদকে ডেকে ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে কাউন্সিল করার কথা বললেও পরদিন বিজয় দিবস হওয়ায় আরও এগিয়ে ১২ ডিসেম্বরের মধ্যে করতে বলেন।
কাউন্সিল করার নির্দেশ দিলেও তারিখ নিয়ে আলোচনা হয়নি জানিয়ে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান বলেন, আমরা দ্রুতই সম্মেলন করে ফেলব। যেহেতু নেত্রী (শেখ হাসিনা) নির্দেশ দিয়েছেন তাই বসে থাকার সময় নেই।
এদিকে কাউন্সিলের প্রস্তুতি নিতে ২৩ অক্টোবর মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তর ও ২৫ অক্টোবর মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিণ বর্ধিত সভা করেছে। তবে বর্ধিত সভা হলেও প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনার পরও সেখানে কাউন্সিলের কোনো তারিখ নির্ধারণ হয়নি। বিষয়টি নিয়ে সম্মেলন করা, না করা নিয়ে বিভক্ত হয়ে পড়ে মহানগর নেতারা। এ প্রসঙ্গে সে সময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন, ‘দুই মহানগর নেতাদের কাউন্সিলের প্রস্তুতি নিতে বলেছি। তবে কাউন্সিল আর সিটি নির্বাচন একসঙ্গে সম্ভব হবে না। ডিসেম্বরের মধ্যে সিটি নির্বাচন হলে কাউন্সিল পরে হবে। তবে কাউন্সিল কবে হবে সেটি নির্ভর করবে নির্বাচন কমিশনের সিডিউল ঘোষণার ওপর।

২০ ও ২১ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। ২০১২ সালের ২৭ ডিসেম্বর ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন হয়। এর তিন বছর পর ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগকে দুই ভাগে বিভক্ত করা হয়। ২০১৬ সালের ১০ এপ্রিল মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তর-দক্ষিণ, ৪৫টি থানা এবং ১০০টি ওয়ার্ড ও ইউনিয়নগুলোর সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকদের নাম ঘোষণা করেন আওয়ামী লীগের সে সময়ের সাধারণ সম্পাদক প্রয়াত সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। এরপরই ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়। ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি করা হয় একেএম রহমতুল্লাহকে। সাধারণ সম্পাদক করা হয় সাদেক খানকে। আর দক্ষিণের সভাপতি হন হাজী আবুল হাসনাত, সাধারণ সম্পাদক করা হয় শাহে আলম মুরাদকে।

Comments

comments

Close