আজ: ২২শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, ৯ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ই রমজান, ১৪৪২ হিজরি, রাত ১০:১৫
সর্বশেষ সংবাদ
জীবন ধারা উপুড় হয়ে শোয়ায় কী কী সমস্যা

উপুড় হয়ে শোয়ায় কী কী সমস্যা


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ২৭/০৯/২০১৯ , ২:২১ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: জীবন ধারা


অনেকেরই পেটে ভর দিয়ে উপুড় হয়ে শোয়ার অভ্যাস আছে। আবার অনেককেই একইভাবে আধশোয়া হয়ে বই পড়া, ল্যাপটপ-মোবাইল চালাতেও দেখা যায়। এসব বদঅভ্যাসের কারণে আপনার মেরুদণ্ড ও শ্বাসপ্রশ্বাসে সমস্যা দেখা দিতে পারে। এমনকি এটি প্রভাব ফেলে শরীরের প্রকৃত বিশ্রাম ও ঘুমের ওপরও।

স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে এই বিষয়ে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে বিস্তারিত জানানো হল :

* বই পড়া, মোবাইল-ল্যাপটপ চালানো ইত্যাদি করার সময় যারা পেটের ভরে শুয়ে থাকেন তাদের সতর্ক হওয়া উচিত। কারণ এতে ক্ষতির শিকার হচ্ছে মেরুদণ্ড এবং অন্ত্র। এভাবে শোয়ার কারণে মেরুদণ্ডের স্বাভাবিক বাঁক বদলে যায়, যে কারণে ঘাড়-পিঠে ব্যথা দেখা দিতে পারে।

* পেটের ভরে শোওয়ার সময় ঘাড় প্রসারিত থাকে আর দুই কাঁধ গিয়ে কানের কাছাকাছি পৌছায়। শরীরের সিংহভাগ ভর পরে দুই হাতের ওপর। এই অবস্থায় বিভিন্ন হাড়ের জোড়ায় অস্বাভাবিক চাপ পড়ে। প্রতিদিনের অভ্যাসে যদি এটি পরিণত হয় তবে দীর্ঘমেয়াদে ভয়ানক ক্ষতি হতে পারে।

* দীর্ঘসময় বসে কম্পিউটার ব্যবহার করার দীর্ঘমেয়াদী ক্ষতিকর প্রভাবের চাইতেও এভাবে শোয়ার ক্ষতির পরিমাণ বেশি বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তারা জানান, মেরুদণ্ড আমাদের স্নায়ুতন্ত্রকে সুরক্ষিত রাখে। আর এই স্নায়ুতন্ত্রই শরীরের সকল অঙ্গের স্বাভাবিক কার্যাবলীর নিয়ন্ত্রক। অর্থাৎ স্নায়ুতন্ত্রে কোনো সমস্যা দেখা দিলে পুরো শরীরই অচল হয়ে পড়তে পারে। আর পেটে ভর দিয়ে শুয়ে থাকায় এই ঝুঁকিটাই বাড়তে থাকে।

* পিঠের নিচের অংশেও অস্বাভাবিক চাপ ফেলে এভাবে শুয়ে থাকা। যা ‘সায়াটিকা’ রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ায়। পিঠের নিম্নাংশে সমস্যা থেকে কোষ্ঠকাঠিন্য ও মলত্যাগজনিত নানা সমস্যাও দেখা দিতে পারে।
* এছাড়াও পেটে ভর দিয়ে শুয়ে থাকার সময় শ্বাসপ্রশ্বাসের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয় পেশিগুলোর ওপর শরীরের ভার পড়ে। ফলে শ্বাসপ্রশ্বাস পরিপূর্ণ হতেও বাধার সৃষ্টি হয়।

এক্ষেত্রে যা করণীয় :

* চেয়ারে বসে কিংবা বিছানায় আরাম করে বসে মোবাইল-ল্যাপটপ ব্যবহারের অভ্যাস করুন।

* বসার সময় পিঠের উপর যাতে অবিরাম চাপ না পড়ে সেদিকে সতর্ক থাকুন।

* দেখার জন্য মাথা না ঝুঁকিয়ে বরং ডিভাইসটি চোখের সমান্তরালে নিয়ে আসার অভ্যাস চর্চা করুন।

Comments

comments

Close
%d bloggers like this: