আজ: ১২ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ২৯শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩০শে শাবান, ১৪৪২ হিজরি, রাত ১২:৫৩
সর্বশেষ সংবাদ
জেলা সংবাদ সাংবাদিককে মারধরের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতা আটক

সাংবাদিককে মারধরের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতা আটক


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ২৭/০৯/২০১৯ , ৮:০২ অপরাহ্ণ | বিভাগ: জেলা সংবাদ


আশুলিয়ায় জমি দখল সংক্রান্ত অভিযোগের ভিত্তিতে খবর সংগ্রহ করতে গেলে এক সাংবাদিকসহ দুইজনকে বেঁধে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে থানা ছাত্রলীগের সভাপতির বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতাকে আটক করেছে পুলিশ।

আহতদের ধামরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার আশুলিয়ার কুরগাঁও এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা শামীমুল আলম শামীম আশুলিয়া থানা ছাত্রলীগের সভাপতি।

মারধরের শিকার মাই টিভি’র আশুলিয়া প্রতিনিধি আব্দুল্লাহ আল ওয়াহিদ অভিযোগ করেন, সকালে কুরগাঁও সোসাইটি প্রফেসর পাড়া এলাকার কামরুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তির জমি অবৈধভাবে দখলের সতত্যা জানতে সরেজমিনে খবর সংগ্রহ করতে যান তিনি। এ সময় আশুলিয়া থানা ছাত্রলীগের সভাপতি এস এ শামীম তাকে খবর সংগ্রহে বাধা দেন। এক পর্যায়ে জমির মালিকের স্বজন ওবায়দুর রহমান ও শামীম জোরপূর্বক তার ব্যক্তিগত অফিসে নিয়ে যান। পরে সেখানে তাদের কোনো কথা না শুনেই হঠাৎ অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও রূঢ় আচরণ করতে থাকেন ছাত্রলীগ নেতা শামীম।

এক পর্যায়ে রশি দিয়ে তাদের বেঁধে পাইপ ও লাঠি দিয়ে বেধড়ক পেটাতে থাকেন শামীমসহ তার সঙ্গে থাকা ৭-৮ জন। পরে কৌশলে তিনি ব্যাপারটি পুলিশকে জানালে পুলিশ তাদের উদ্ধার করে ধামরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ সময় শামীমকেও আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

জমির মালিক ও গকুলনগর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক কামরুল হাসান অভিযোগ করেন, প্রফেসর পাড়া এলাকায় পৈতৃক ১৯.২৫ শতাংশ জমিতে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছে তার পরিবার। কিন্তু বিগত ২-৩ মাস ধরে আশুলিয়া থানা ছাত্রলীগ সভাপতি শামীম তার ১০ শতাংশ জায়গা অবৈধভাবে দখলের চেষ্টা করছেন। কোনো উপায় না পেয়ে তিনি শুক্রবার সাংবাদিক ও তার এক স্বজনকে ঘটনাস্থলে পাঠালে তাদের মারধর করে শামীম ও তার লোকজন।

এ বিষয়ে ঢাকা জেলা উত্তর ছাত্রলীগের সভাপতি সাইদুল ইসলাম বলেন, ওই ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মারধরের ঘটনা প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আশুলিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নাহিদ হাসান জানান, এক সাংবাদিকসহ দুইজনকে আটকে রেখে মারধরের খবরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাদের উদ্ধার করে ধামরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায়। এ সময় অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা শামীমকেও থানায় নিয়ে আসা হয়। তবে ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাদের নির্দেশে ঘটনাটি অধিকতর তদন্তপূর্বক পরবর্তীতে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

Comments

comments

Close
%d bloggers like this: