আজ: ১২ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ২৯শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩০শে শাবান, ১৪৪২ হিজরি, রাত ১২:৫৮
সর্বশেষ সংবাদ
বিনোদন হাজিরা দিলেন অভিনেত্রী নওশাবা, মামলা সাইবার ট্রাইব্যুনালে বদলি

হাজিরা দিলেন অভিনেত্রী নওশাবা, মামলা সাইবার ট্রাইব্যুনালে বদলি


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ১৪/০৭/২০১৯ , ২:৩৯ অপরাহ্ণ | বিভাগ: বিনোদন


ফেসবুকে গুজব ছড়ানোয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে করা মামলায় হাজিরা দিয়েছেন অভিনেত্রী কাজী নওশাবা আহমেদ। হাজিরা দেওয়ার পর বিচারক মামলাটি বিচারের জন্য সাইবার ট্রাইব্যুনালে বদলি করেন। রবিবার ঢাকা মহানগর হাকিম দিদার হোসেনের আদালতে উপস্থিত হয়ে হাজিরা দেন তিনি।

এদিন বিচারক তার বিরুদ্ধে দেয়া চার্জশিটটি ‘দেখিলাম’ বলে স্বাক্ষর করে মামলাটি বিচারের জন্য সাইবার ট্রাইব্যুনালে বদলির আদেশ দেন।ফেসবুকে গুজব ছড়ানোয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে করা মামলায় হাজিরা দিয়েছেন অভিনেত্রী কাজী নওশাবা আহমেদ। হাজিরা দেওয়ার পর বিচারক মামলাটি বিচারের জন্য সাইবার ট্রাইব্যুনালে বদলি করেন।

এর আগে গত ৩০ এপ্রিল ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে অভিনেত্রী নওশাবার বিরুদ্ধে রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে করা মামলার চার্জশিট দাখিল করা হয়। তদন্ত কর্মকর্তা কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইমের পুলিশ পরিদর্শক শওকত আলী সরকার এ চার্জশিট দাখিল করেন। চার্জশিটে এমনটাই উল্লেখ করেছেন তিনি। মামলায় সাক্ষী করা হয়েছে ২০ জনকে।

চার্জশিটে শওকত আলী সরকার উল্লেখ করেন, ‘আসামি কাজী নওশাবা ইচ্ছাকৃত ও পরিকল্পিতভাবে রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করতে জনসাধারণের অনুভূতিতে আঘাত করে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটনোর জন্য মিথ্যা ও মানহানিকর তথ্য প্রকাশ এবং প্রচার করে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন-২০০৬ (সংশোধনী) এর ৫৭ (২) ধারায় অপরাধ করেছে।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৪ আগস্ট কাজী নওশাবা নিজের ফেসবুক থেকে অত্যন্ত আবেগী কণ্ঠে লাইভ ভিডিও সম্প্রচার করে বলেন, ‘জিগাতলায় আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা করে একজনের চোখ উঠিয়ে ফেলা হয়েছে এবং চারজনকে মেরে ফেলেছে। আপনারা যে যেখানে আছেন, কিছু একটা করেন।’ তার এ আহ্বানের ভিডিও মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়। এতে জনমনে আতঙ্ক ও বিদ্বেষ ছড়িয়ে পড়ে। পরে বিভিন্ন গণমাধ্যমকর্মী তার এই প্রোপাগান্ডার উৎস জানতে ফোন করলে এর স্বপক্ষে সঠিক কোনো উত্তর দিতে পারেননি তিনি। ওই সময় জিগাতলায় এ ধরনের কোনো ঘটনাও ঘটেনি। এ ঘটনায় ৫ আগস্ট র‌্যাব-১ এর কর্মকর্তা আমিরুল ইসলাম বাদী হয়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন-২০০৬ সালের ৫৭(২) ধারায় রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলাটি করেন।

Comments

comments

Close
%d bloggers like this: