আজ: ২১শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, ৫ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৫ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি, সকাল ১১:০৪
সর্বশেষ সংবাদ
জেলা সংবাদ, ঢাকা বিভাগ শ্রীপুরে হাত পা বাঁধা অবস্থায় পুকুরে ভাসমান নারীর লাশ উদ্ধার

শ্রীপুরে হাত পা বাঁধা অবস্থায় পুকুরে ভাসমান নারীর লাশ উদ্ধার


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ২৭/০৬/২০১৯ , ৭:৪৯ অপরাহ্ণ | বিভাগ: জেলা সংবাদ,ঢাকা বিভাগ


মহিউদ্দিন আহমেদ,    শ্রীপুর( গাজীপুর) প্রতিনিধি:
শ্রীপুরের রাজাবাড়ি ইউনিয়ন এলাকায়  পুকুরের  পাশে একটি পাকা খুঁটির সাথে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় নারীর ভাসমান মরদেহ উদ্ধার করেছে শ্রীপুর মডেল থানা পুলিশ।

 বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) দুপুর ১.৩০ টার নিহত সাবিনা আক্তার (২৩) এর লাশ  রাজাবাড়ি বাজারের অগ্রণী ব্যাংকের পেছনের একটি পুকুর থেকে উদ্ধার করা হয়।

নিহত সাবিনা আক্তার  ময়মনসিংহ জেলার ধোবাউড়া উপজেলার জোঁকা গ্রামের লাল মিয়ার মেয়ে।

নিহতের আত্নীয় সুত্রে জানা যায়, তিন বছর পূর্বে  সাবিনার সাথে  গাজীপুর মহানগরীর তেলিপাড়া এলাকার আক্তার হোসেনের ছেলে নাহিদের  বিয়ে হয়। বিয়ের আগে সে গাজীপুর মহানগরীর একটি পোশাক তৈরির  কারখানায় চাকরি করতো । সেখান থেকে নাহিদ এর সাথে পরিচয় ও পরে বিয়ে হয়, কিন্তু  নাহিদের পরিবার বিষয়টি  মেনে নেয়নি।

পরে সাবিনা রাজাবাড়ী ইউনিয়নের সূর্য নারায়নপুর গ্রামের কামাল হোসেনের বাড়িতে ভাড়া থেকে ধলাদিয়া গ্রামের শারমিন টেক্সটাইল লিমিটেডে শ্রমিকের চাকরি নিয়ে সেখানেই বসবাস করতো । বিবাহিত জীবনে তার দেড় বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে।

নিহতের আত্নীয় সুত্রে  আরো  জানা যায়, সাবিনা আক্তার স্বামী ছাড়াও অন্য  ছেলের সাথে প্রায়ই মুঠোফোনে কথা বলতো। মঙ্গলবার (২৫ জুন) রাত ১১ টার দিকে একজন ছেলে মোটরসাইকেল যোগে সাবিনাকে তার ভাড়া বাসা থেকে উঠিয়ে নিয়ে যায়। এরপর থেকে সে নিখোঁজ হয়।  বৃহস্পতিবার একটি পুকুরে তার মরদেহের খোঁজ পাওয়া যায়।

শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) জাহাঙ্গীর আলম জানান,অগ্রণী ব্যাংকের পিছন দিকের একটি পুকুরে নারীর ভাসমান লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করে।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লিয়াকত আলী জানান, পরকীয়া প্রেমের কারনে এ হত্যাকান্ড ঘটতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে।  মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।এ ব্যাপারে মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

Comments

comments

Close
%d bloggers like this: