আজ: ১৮ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ২রা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি, বিকাল ৪:৫৯
সর্বশেষ সংবাদ
জেলা সংবাদ, রংপুর বিভাগ অনিয়ম ও দূর্নীতির আখরা কালীগঞ্জ সেটেলমেন্ট অফিস

অনিয়ম ও দূর্নীতির আখরা কালীগঞ্জ সেটেলমেন্ট অফিস


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ২৫/০৩/২০১৯ , ১২:৪৬ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: জেলা সংবাদ,রংপুর বিভাগ


আফতাবুজ্জামান দুলাল   কালীগঞ্জ লালমনিরহাট প্রতিনিধি : অনিয়ম দুর্নীতির আখড়া পরিনত হয়েছে লালমনিরহাটরে কালীগঞ্জ উপজেলা সেটেলমেন্ট অফিস। হয়রানীর শিকার ভূমি মালিকগন। এ অফিসে জমিজমা সংক্রান্ত বিভিন্ন রকম পর্চা ও রেকর্ডের সংশোধন বাবদ কাগজপত্রে আইনের জটিলতা দেখিয়ে এলাকার জমির মালিকদের কাছ থেকে সরকারী নির্ধারিত ফি ছাড়াও মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে পেশকার তরিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে।

রবিবার ২৪ মার্চ সরকারীভাবে কোন অফিস বন্ধ ছিল না অথচ উপজেলা সেটেলমেন্ট অফিসে ঝুলছে তালা।

এদিকে সেটেলমেন্ট অফিসের পেশকার তরিকুল ইসলাম দালালদের সাথে যোগসাজশে দীর্ঘদিন যাবৎ অনিয়ম দুর্নীতির মাধ্যমে এলাকার জমির মালিকদের কাছ থেকে অবৈধভাবে মোটা অংকের টাকা উপার্জন করে চলেছে।

জানা যায়, দীর্ঘ ৩থেকে ৪ বছর যাবৎ তিনি এ অফিসে কর্মরত আছেন। যোগদানের পর থেকে শুরু হয়েছে অনিয়ম-দূর্নীতি। যা এখন প্রতিরোধ না করলে আগামীতে প্রচুর ক্ষতিগ্রস্ত হবে সাধারণ জনগণ।
কারণ তিনি টাকার বিনিময় ছাড়া কোন কাজ করেন না। ম্যাপশিট তুলতে সরকারি ফি ছাড়াও
দলিলের নকল রংপুর থেকে তুলে এনে দেয়ার নাম করে ১০০০ থেকে ৫০০০ টাকা নেন। ভুক্তভোগী সাধারণ জনগণ ও সুশীল সমাজ কালীগঞ্জ সেটেলমেন্ট অফিসের দুর্নীতিবাজ পেশকার তরিকুলের বিরুদ্ধে তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এ ব্যাপারে পেশকার তরিকুল ইসলামের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া গিয়াছে।

এ বিষয় সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার ফজলুর রহমানের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে অফিস খোলা আছে কি না? জানতে চাইল তিনি জানান, অফিস তো খোলা আছে। তবে কেন বন্ধ সেটা আমার জানা নেই। ফজলুর রহমান তিনি এ অফিসে কাগজে কলমে কর্মরত থাকলেও দীর্ঘদিন ধরে তিনি এ অফিসে আসেন না। অথচ সরকারী সুযোগ সুবিধা ঠিকই ভোগ করছেন।

Comments

comments

Close
%d bloggers like this: