আজ: ১১ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার, ২৮শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে শাবান, ১৪৪২ হিজরি, রাত ৪:১৮
সর্বশেষ সংবাদ
জেলা সংবাদ শাহজাদপুরে আদালত অবমাননার দায়ে ইউপি চেয়ারম্যানকে ৩০ মিনিটের সাজা প্রদান

শাহজাদপুরে আদালত অবমাননার দায়ে ইউপি চেয়ারম্যানকে ৩০ মিনিটের সাজা প্রদান


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ১৮/০৩/২০১৯ , ৪:০৮ অপরাহ্ণ | বিভাগ: জেলা সংবাদ


ফারুক হাসান কাহার: 

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার নরিনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফজলুল হক মন্ত্রীকে ৩০ মিনিট আদালতের কাঠগড়ায় দাড়িয়ে থাকার সাজা প্রদান করেছেন আদালত। সোমবার (১৮ মার্চ) দুপুরে শাহজাদপুর সিনিয়র সহকারী জজ (পারিবারিক) আদালতের বিচারক কিশোর দত্ত এ সাজা প্রদান করেন।

শাহজাদপুর সিনিয়র সহকারী জজ (পারিবারিক) আদালতের পেশকার প্রদ্যুত ধর জানান,২০১৭ সালে শাহজাদপুর উপজেলার নরিনা ইউনিয়নের চর নরিনা গ্রামের লোকমান আকন্দর মেয়ে লাবণী খাতুন(২৫) বাদী হয়ে একই উপজেলার খাসসাতবাড়িয়া গ্রামের ছানোয়ার হোসেনের ছেলে ও লাবণীর স্বামী নূরুল ইসলাম শিপনের বিরুদ্ধে শাহজাদপুর সিনিয়র সহকারী জজ (পারিবারিক) আদালতে যৌতুক ও পারিবারিক ডিক্রি জারির ২টি মামলা দায়ের করেন।

এ মামলা চলা অবস্থায় আদালতকে অবমাননা করে শাহজাদপুর উপজেলার নরিনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফজলুল হক মন্ত্রী গ্রাম্য শালিশের মাধ্যমে আপোষ মিমাংসার নামে বাদী লাবণী খাতুনের ইচ্ছার বিরেুদ্ধে তার স্বাক্ষর নিয়ে ১ লাখ ৪০ হাজার টাকার বিনিময়ে আপোষ রফা করেন। ওই টাকাও তাকে বুঝিয়ে না দিয়ে চেয়ারম্যান ফজলুল হক নিজের কাছে রেখে দেন। আর বলেন, আদালত থেকে মামলা তুলে নেয়ার পর তার কাছ থেকে টাকা নিয়ে যেতে।

এতে বাদী লাবণী খাতুন ক্ষুব্ধ হয়ে নরিনা ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুল হক মন্ত্রীর এ আপোষ মিমাংসার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহণের জন্য ওই একই আদালতে একটি লিখিত আবেদন করেন। শাহজাদপুর সিনিয়র সহকারী জজ (পারিবারিক) আদালতের বিচারক কিশোর দত্ত লিখিত আবেদনটি আমলে নিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুল হক মন্ত্রীকে আদালতে স্বশরীরে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেন।

সোমবার দুপুরে ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুল হক মন্ত্রী আদালতে হাজির হয়ে এর জবাব প্রদান করলে এ আদালতের বিচারক আদালত অবমাননার দায়ে তাকে ৩০ মিনিট কাঠগড়ায় দাড়িয়ে থাকার সাজা প্রদান করেন। এ সাজা ভোগ শেষে তার আইনজীবি অ্যাডভোকেট আবুল কাশেম মিয়ার মাধ্যমে লিখিত ভাবে তিনি নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করলে আদালত তাকে ক্ষমা করে মুক্তি প্রদান করেন। বাদী পক্ষের আইনজীবি অ্যাডভোটেক আনোয়ার হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

Comments

comments

Close
%d bloggers like this: