আজ: ২২শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার, ৬ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি, বিকাল ৪:২৯
সর্বশেষ সংবাদ
জেলা সংবাদ শ্রীপুরে নির্বাচনী পোষ্টারে আওয়ামী লীগের স্লোগান ও দলীয় পদ ব্যবহার করছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী

শ্রীপুরে নির্বাচনী পোষ্টারে আওয়ামী লীগের স্লোগান ও দলীয় পদ ব্যবহার করছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ১১/০৩/২০১৯ , ৩:৩৫ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: জেলা সংবাদ


মহিউদ্দিন আহমেদ , শ্রীপুর ,(গাজীপুর) প্রতিনিধি: গাজীপুরের শ্রীপুরে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এডভোকেট শামসুল আলম প্রধান চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী প্রতীক মোটরসাইকেল নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। প্রচার প্রচারণার শুরু থেকেই তিনি আওয়ামীলীগের তৃণমূলের প্রার্থী হিসেবে প্রচার দিয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের বিভ্রান্ত করে বিভক্তির সৃষ্টির চেষ্টা করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে ।

প্রতীক পাওয়ার পর আচারণ বিধি লঙ্খন করে পোস্টার, ব্যানার, হ্যান্ড বিল ও স্টিকারে আওয়ামী লীগের দলীয় স্লোগান ও তাঁর দলীয় পদ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ব্যবহার করেন। এগুলো উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মাঝে ছড়িয়ে দিয়েছেন। এতে করে দলীয় নেতাকর্মী আওয়ামীলীগের প্রার্থী নিয়ে যথেষ্ট বিভ্রান্ত হয়েছেন।

এসব অভিযোগ এনে গত  রোববার (১০ মার্চ) উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী আব্দুল জলিল রির্টানিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

নৌকা প্রতীকের আব্দুল জলিল বলেন, এড.শামসুল আলম প্রধান দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের বিভ্রান্ত করে একটি বিভক্তি সৃষ্টি করার ষড়যন্ত্র করছেন। এরই পরিকল্পনা অনুযায়ী তিনি আওয়ামী লীগের স্লোগান ও দলীয় পদবী ব্যবহার করে প্রচারণা চালাচ্ছেন।

আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এড.শাসমুল আলম প্রধানকে মোঠোফোনে একাধিকবার কল করলেও তিনি রিসিভ করেন নাই।

এবিষয়ে রির্টানিং কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো.তারিফুজ্জামান বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়ে স্বন্ত্রত্ব প্রার্থী এড.সামসুল আলম প্রধানকে মৌখিক ভাবে নির্দেশ দেয়া হয়েছে পোস্টার ব্যানারসহ প্রচার মাধ্যমে যেখানে আচারণ বিধি লঙ্খন করে আওয়ামী লীগের স্লোগান ব্যবহার করা হয়েছে তাৎক্ষণিক সড়িয়ে ফেলার। এর সাথে সংশ্লিষ্ট থানার ওসি ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে আচারণ বিধি লঙ্খন হলেই আইনের আওতায় আনার জন্য।

Comments

comments

Close
%d bloggers like this: