আজ: ১৭ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার, ৪ঠা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৫ই রমজান, ১৪৪২ হিজরি, রাত ৪:৪৪
সর্বশেষ সংবাদ
খেলাধূলা, জেলা সংবাদ, রংপুর বিভাগ বিপিএল’এ নিজের মাঠে বসুন্ধরার জয়রথ

বিপিএল’এ নিজের মাঠে বসুন্ধরার জয়রথ


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ০৬/০৩/২০১৯ , ১২:২৩ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: খেলাধূলা,জেলা সংবাদ,রংপুর বিভাগ


সুভাষ বিশ্বাস, নীলফামারী:বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল) ফুটবলে নীলফামারীর শেখ কামাল স্টেডিয়ামে গতকাল মঙ্গলবার শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র লিমিটেডের বিপক্ষে ১-০ গোলে জয় পেয়েছে বসুন্ধরা কিংস। দুর্দান্ত একটি গোল ও আক্রমন, পাল্টা আক্রমনের একটি উপভোগ্য ফুটবল ম্যাচে যে রসদ থাকার প্রয়োজন তার সবই পাওয়া গেছে গতকালের এই ম্যাচে। এনিয়ে হোমে পাঁচটি ম্যাচে জয় পেল বসুন্ধরা কিংস। একের পর এক জয়ে এ অঞ্চলের ফুটবল প্রেমিদের মনে ধারণা জেগেছে নীলফামারীর মাটি যেন বসুন্ধরা কিংসকে মানিয়ে নিয়েছে।

গতকাল খেলা শুরু হয় বিকেল সাড়ে তিনটায়। প্রথমার্ধে কোন দলেই গোলের দেখা পায়নি। দু’দলেই গোলের জন্য মরিয়া হয়ে আক্রমত্মক খেলতে থাকেন। তবে প্রথমার্ধের বেশীভাগ সময় বল শেখ রাসেলের নিয়ন্ত্রণে থাকে। এই সময় বেশ কয়েকটি সুযোগেও মিস করেন তারা। প্রথমার্ধের ৪ ও ২৪ মিনিটে দু’টি সুবর্ণ সুযোগ কাজে লাগাতে পারেনি শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। ১০ ও ২৬ মিনিটে ডি-বক্সের সামনে থেকে ২টি ফ্রি-কিক মিস করেন বসুন্ধরা কিংস। ২৯ মিনিটে কোস্টারিকার ফুটবলার কলিনড্রেস বল ড্রিবলিং করে শেখ রাসেলের গোলবারের ডান দিকে নিয়ে গেলে নাইজেরিয়ান ফুটবলার এলিসনের প্রচন্ড বাধায় বল মাঠের বাহিরে যায়। এতে ক্ষীপ্ত হয়ে কলিনড্রেস চড় বসিয়ে দেন এলিসনের গালে। এঘটনায় কলিনড্রেসকে হলুদ কার্ড দেখান রেফারি ভারত চন্দ্র। ৩৫ মিনিটে শেখ রাসেলের নাইজেরিয়ান ফুটবলার রাফেয়েল ওদয়েন থ্রি পাস থেকে বল নিয়ে বসুন্ধরার ডি-বক্সে যেয়ে বল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে মাটিতে শুয়ে পড়েন সে। রেফারি তার অভিনয় বুঝতে পেরে তাকে হলুদ কার্ড দেখান। এভাবে প্রথমার্ধের খেলা গোল শুন্য শেষ হয়।

দ্বিতীয়ার্ধের খেলা শুরু হওয়ার সাথে সাথে দু’দলেই গোলের জন্য মরিয়া হয়ে খেলতে থাকেন। ৫৭ মিনিটে সেই কাঙ্খিত গোলটি পেয়ে যায়  বসুন্ধরা কিংস। শেখ রাসেলের গোলবারের ডান কর্ণার থেকে মো: ইব্রাহিমের পাস থেকে গোলের কাছে থাকা ব্রাজিলিযার খেলোয়ার মারকোস ভেনিকার্ড বল পেয়ে দারুন ভাবে বাই সাইকেল ওভারহেড শর্টে জালে বল পাঠালে  ১-০ গোলে এগিয়ে যায়  বসুন্ধরা কিংস।

গোল হওয়ার পর সমতায় ফিরতে আরো আক্রমত্মক খেলতে থাকে শেখ রাসেল। বাকী সময়টা কেটেছে এই বুঝি ফিরল সমতা, এমন উত্তেজনায়! শেষ পর্যন্ত না হলেও উপভোগ্য এক ম্যাচ দেখতে পারায় আনন্দ নিয়েই ঘরে ফিরেছে স্টেডিয়ামে আসা দর্শকরা। শেখ রাসেল ৮৪ মিনিটে মুন্নাকে তুলে নিয়ে তার জায়গায় নামায়  রুমন হুসাইনকে। ৮৫ ও ৮৭ মিনিটে বসুন্ধরা কিংস দুজন খেলোয়ার পরিবর্তন করে। শেষার্ধের অতিরিক্ত ৪ মিনিটের সময় ফাউলের জন্য বসুন্ধরা কিংসের সুশান্ত ত্রিপুরা ও অতিরিক্ত সময় নেয়ার জন্য গোলরক্ষক আনিছুর রহমান জিকোকে হলুদ কার্ড দেখানো হয়। এদিকে অতিরিক্ত সময়ে  সম্ভাবনাময় তিন গোল মিস করে ১-০ গোলে হেরে  মাঠ থেকে বিদায় নিতে হয় শেখ রাসেলকে।
শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের কোচ এ কে এম সাইফুল বারী টিপু জানান তার দল খুব ভাল খেলেছে। এরপরও জিততে না পারা দু:খজনক। তিনি বলেন বেশ কয়েকটি গোল মিস না করলে আজ তাদের জয় হতো।
খেলা শেষে র‌্যাফেল ড্র অনুষ্ঠিত  হয়। র‌্যাফেল ড্র’র প্রথম পুরস্কার ছিল একটি মোটরসাইকেল। র‌্যাফেল ড্র’র কারণে স্টেডিয়ামে দর্শক একটু বেশী ছিল।

Comments

comments

Close
%d bloggers like this: