আজ: ৬ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২রা জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি, রাত ৯:২১
সর্বশেষ সংবাদ
জেলা সংবাদ চাঁদাবাজি ও ব্যবসায় বাধা প্রদানকারীর গ্রেফতারের দাবিতে শাহজাদপুরে ট্যাংকলরি শ্রমিকদের কর্মবিরতি ও বিক্ষোভ

চাঁদাবাজি ও ব্যবসায় বাধা প্রদানকারীর গ্রেফতারের দাবিতে শাহজাদপুরে ট্যাংকলরি শ্রমিকদের কর্মবিরতি ও বিক্ষোভ


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ০৫/০২/২০১৯ , ৫:৩৩ অপরাহ্ণ | বিভাগ: জেলা সংবাদ


ফারুক হাসান কাহার, শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি : উত্তরবঙ্গ ট্যাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়নের সমবায় ফিলিং ষ্টেশনে চাঁদাবাজ ও  ব্যবসায় বাধা প্রদানকারীর গ্রেফতারের দাবিতে বাঘাবাড়ীতে ট্যাংকলরি শ্রমিকদের কর্মবিরতি ও বিক্ষোভ পালিত হয়েছে ।
জানা গেছে, গত ২৯ জানুয়ারি হাটিকুমরুলে উত্তরবঙ্গ ট্যাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়নের মালিকানাধীন মেসার্স সমবায় ফিলিং ষ্টেশন ও সমবায় সার্ভিস সেন্টারে হাটিকুমরুল এলাকায় সাইদ মন্ডলের পুত্র বাবু মন্ডলের নেতৃত্বে একদল লোক ব্যবসায়ী মালপত্র কমদামে বিক্রয় করার জন্য চাপ প্রদান করে। কিন্তু মালামাল কমদামে বিক্রি করতে  অস্বীকার করায় বাবু মন্ডলের নেতৃত্বে হামলা ভাংচুর ও প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার আব্দুল মালেক (৪০) ও ইঞ্জিনিয়ার মোক্তার হোসেন (৩২) কে মারপিট করে। এদিকে ব্যাবসায় বাধা প্রদানকারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানিয়ে উত্তরবঙ্গ ট্যাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক মুনির হোসেন সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দেন।

এ দিকে সোমবার রাতে সলঙ্গা থানা পুলিশ বাবুকে গ্রেফতার করলেও আধা ঘন্টা পরেই ছেড়ে দেয়। এ ঘটনায় শ্রমিকদের মধ্যে চরম অসন্তোষ দেখা দেয়। এর প্রতিবাদ জানিয়ে বাঘাবাড়ীতে অবস্থিত  উত্তরবঙ্গ ট্যাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়নের শ্রমিকরা মঙ্গলবার সকাল ৮ টা থেকে  বেলা ১২ টা পর্যন্ত কর্মবিরতি পালন  ও বিক্ষোভ মিছিল করে। এ সময় ডিপো থেকে তেল উত্তোলন বন্ধ থাকে। বিক্ষোভ চলাকালে সকল ধরনের  যানবাহন চলাচলও কিছু সময়ের জন্য বন্ধ হয়ে যায়।
এ ব্যাপারে, উত্তরবঙ্গ ট্যাংলরি শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মোজাম্মেল হক, সাধারন সম্পাদক মুনির হোসেন. কার্যকরি সভাপতি আজিজুর রহমান ও সাংগঠনিক সম্পাদক আজমত মোল্লা সাংবাদিকদের বলেন, শ্রমিক ইউনিয়নের মালিকানাধীন হাটিকুমরুলে অবস্থিত সমবায়  ফিলিং ষ্টেশন ও সার্ভিস সেন্টারে বাবুর নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী চাঁদা দাবিসহ মালামাল কমদামে বিক্রয় করার জন্য হুমকি দিয়ে আসছিলো। তাদের দাবি মেনে না নেয়ায়  আমাদের  ম্যানেজার ও ইঞ্জিনিয়ারকে  মারপিট করে। এ ঘটনায় সলঙ্গা থানা পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করলেও  পরে আবার ছেড়ে দেয়। এর প্রতিবাদে ও হুমকিদাতাদের গ্রেফতারের দাবিতে আমরা এ কর্মসুচির আয়োজন করি। উপযুক্ত বিচার না করলে আমরা আগামীতে সারাদেশে অনির্দিষ্ট কালের জন্য কর্মসুচি ঘোষনা করবো।

Comments

comments

Close