আজ: ১৮ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৬ই শাওয়াল, ১৪৪২ হিজরি, রাত ১১:৪১
সর্বশেষ সংবাদ
খেলাধূলা ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট, ওয়ানডে নিয়ে আশাবাদী মুমিনুল

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট, ওয়ানডে নিয়ে আশাবাদী মুমিনুল


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ২৩/০৬/২০১৮ , ১২:১৪ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: খেলাধূলা


টি-টোয়েন্টির বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এই ফরম্যাটে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স কেমন হবে, তা নিয়ে দ্বিধায় মুমিনুল হক! তবে টেস্ট ও ওয়ানডে নিয়ে আশাবদী বাংলাদেশের টেস্ট স্পেশালিস্ট ব্যাটসম্যান।বুকভরা আত্মবিশ্বাস নিয়ে শুক্রবার মুমিনুল বলেছেন, ‘আমরা টেস্ট ও ওয়ানডেতে ভালো কিছু আশা করতে পারি।’ এর পিছনের কারণটা বড় করে ব্যাখ্যা না করলেও আত্মবিশ্বাসী মুমিনুল বলেছেন, ‘আমার কাছে মনে হয়, টেস্ট তো বটেই, ওয়ানডেতেও আমরা ভালো ক্রিকেট খেলব। শুধু টেস্ট বললে হবে না। ওয়ানডেতে আমরা ওদের চেয়ে ভালো খেলি। টি-টোয়েন্টি বললে পারব না। তবে টেস্ট-ওয়ানডেতে ভালো কিছু আশা করতে পারি।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দুটি টেস্ট এবং তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলতে শুক্রবার রাতেই  রওনা দিয়েছে টিম বাংলাদেশ। অতীত রেকর্ড টেস্টে বাংলাদেশকে আত্মবিশ্বাসী করে তুলছে। ২০০৪, ২০১০ এবং ২০১৪ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর করেছে বাংলাদেশ। ২০০৪ সালে প্রথম সফরের প্রথম টেস্ট ড্র করেছিল বাংলাদেশ। পরের টেস্ট হারে ইনিংস ও ৯৯ রানে। ২০০৯ সালে জাতীয় দলের মোড়কে ‘এ’ দলকে বাংলাদেশের বিপক্ষে মাঠে নামায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ২-০ ব্যবধানে জেতে বাংলাদেশ। ২০১৪ সালে বাংলাদেশ দুটি ম্যাচই হারে বিশাল ব্যবধানে। সব মিলিয়ে ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জে ছয় ম্যাচে দুটি জয়, একটি ড্র বাংলাদেশের। সাদা পোশাকে পারফরম্যান্স সমান সমান।শেষ সফরে বাংলাদেশ হেরেছে ক্যারিবীয় পেসারদের দুর্বোধ্য বাউন্সারে। কেমার রোচ, শ্যানন গ্যাব্রিয়েলের বাউন্সারে বিচলিত ছিলেন ব্যাটসম্যানরা। সেই বাউন্সারগুলোতেই এবার ফাঁদ পাতবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ! শেষ সফরে দুই টেস্টের চার ইনিংসে ১২২ রান করা মুমিনুলের বিশ্বাস এবার বাউন্সার নিয়ে ভালো প্রস্তুতি নিয়েছেন তারা।ওয়েস্ট ইন্ডিজে গিয়ে কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারলে প্রস্তুতি শতভাগ সম্পন্ন হবে বলে বিশ্বাস তার, ‘এমন তো নয় আমরা জীবনে বাউন্সি উইকেটে খেলিনি! এটা নিয়ে চিন্তিত হওয়ার কিছু নেই, আমাদের দুর্ভাবনারও কিছু নেই। বাউন্সি উইকেটে আগেও খেলেছি। ওখানে গিয়ে দ্রুত মানিয়ে নিতে হবে। মানিয়ে নিতে পারলে সমস্যা নেই।’ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের আগে ‍হুট করেই দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন বাংলাদেশের নতুন কোচ স্টিভ রোডস। দীর্ঘদিন আগে নিয়োগ পেলেও রোডস কাজ শুরু করেছেন তিনদিন হলো। নতুন কোচকে মনে ধরেছে মুমিনুলের। তার কন্ঠে সেই সুর পাওয়া গেল, ‘মাত্র এক-দুইদিন হয়েছে, ওভাবে এখনো বোঝা যাবে না। তবে সম্পর্কের কথা বললে খুব ভালো হচ্ছে। আশা করি সবাই দ্রুত মানিয়ে নিতে পারব। একজন মানুষের সঙ্গে মিশতে, তাকে বুঝতে সময় লাগে। আমার মনে হয় ভালোই হবে। আমরা কিছু শিখত পারলে আরো ভালো হবে।’

Comments

comments

Close
%d bloggers like this: