আজ: ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৪ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি, সন্ধ্যা ৭:৪২
সর্বশেষ সংবাদ
ভ্রমন ১০৭ দেশ ভ্রমণকারী বাঙালী মেয়ে ফৌজিয়া

১০৭ দেশ ভ্রমণকারী বাঙালী মেয়ে ফৌজিয়া


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ০২/০৬/২০১৮ , ৪:৫০ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: ভ্রমন


জিনিয়া রহমানঃ 

ফৌজিয়া খান। পেশায় ডাক্তার আর নেশা হলো ঘুরে বেড়ানো। সুরা মূলক এ আল্লাহ্তায়ালা বলেছেন “তিনি তোমাদের জন্য ভূমিকে সমতল করেছেন। অতএব তোমরা এতে বিচরণ কর; আহার কর তাঁর দেয়া রিজিক থেকে। অত:পর প্রত্যাবর্তন তাঁরই কাছে।” আল্লাহ এখানে সরাসরি বলেছেন ভ্রমণ করতে। এই বাণীতেই ভীষণ অনুপ্রাণিত হলেন তিনি। ফৌজিয়ার কাছে ভ্রমণ একটি ইবাদত। তাই “আল্লাহর দুনিয়া দেখব” বলে বেরিয়ে পড়লেন পৃথিবী দেখার উদ্দেশ্যে।

৭ ফেব্রুয়ারী ২০১০ এ মিশর ভ্রমণের মধ্যে দিয়ে তিনি শুরু করলেন বিশ্বভ্রমণ। ২০১৭ সালের ১৭ এপ্রিল সাউথ কোরিয়া ভ্রমণের মাধ্যমে তিনি সম্পন্ন করেন ১০০ তম দেশ ঘোরা। এর মধ্যে পাড়ি দিয়েছেন লক্ষ কিলোমিটার, উঠেছেন হাজারের বেশী ফ্লাইটে, দেখা হয়েছে কত শত বিচিত্র মানুষের সাথে আর জমা হয়েছে কত কত স্মৃতি! এখানেই থেমে নেই তিনি। ২০১৮ এর এপ্রিলে ইতোমধ্যে ঘুরেছেন ১০৫, ১০৬ ও ১০৭ তম দেশ কাজাখাস্তান, তাজিকিস্তান ও কিরগিস্তান। 

3DF2EE30-37A0-4579-A270-E916DCDE99FC

মেডেও মাউন্টেন, কাজাখাস্তানে ফৌজিয়া খান

 

31D00C5F-C289-4BB3-8B83-65F767042971

ইয়েরেভান, আর্মিনিয়াতে ।

 

অ্যান্টার্কটিকা ভ্রমণ প্রসঙ্গে তিনি বলেন “ ২০১৩ সাল, আমার বিশ্ব ভ্রমণ ম্যানিয়া তখন তুঙ্গে। দিন রাত গ্লোব নিয়ে গবেষণা করি, নতুন নতুন দেশ আবিষ্কার করি আর বেরিয়ে পড়ি। গ্লোবেই জীবন গ্লোবেই মরণ, এর বাইরে আর কিছু জানিনা.. জানতেও চাই না। এমন অবস্থায় একদিন ইন্টারনেট ব্রাউজ করতে গিয়ে হঠাৎ দেখি অ্যান্টার্কটিকা ভ্রমণের বিজ্ঞাপন। হোয়াট? ওখানে আবার মানুষ যায় কিভাবে? ওই শুরু! সারাদিন তথ্য সংগ্রহ যাচাই বাছাই আমার একমাত্র ধ্যানে পরিণত হলো। কবে হবে দেখা তোমার সনে…আমি অস্থির…রিকশাওয়ালা কই যাইবেন জিজ্ঞেস করলেও বলি, অ্যান্টার্কটিকা! অবশেষে মহান আল্লাহ্ রাব্বুল আলামিনের মহাকরুণায় আর্জেন্টিনা এবং সেখান থেকে জাহাজে দুদিনের পথ পেরিয়ে পৌঁছলাম স্বপ্নের অ্যান্টার্কটিকা।” 

আগেও গিয়েছেন, এ বছর আবারো হজ্জে যাচ্ছেন তিনি। ফিরে আবার পরিকল্পনা করবেন নতুন কোনো দেশে পা ফেলার। ফৌজিয়া মনে করেন সামান্য সুযোগ থাকলেই বেড়ানো উচিত। আর তাই আমেরিকার চাকুরীতে রিটায়ার করে ফিরে এলেন দেশে। পেলেন পৈতৃক কিছু সম্পত্তি। দুবার ভাবেননি বা পিছু ফিরে তাকাননি, আল্লাহর মহান বাণী বুকে ধারণ করে ঘুরে বেরিয়েছেন ৭টি মহাদেশ। অব্যাহত থাকুক ফৌজিয়া খানের এই বিশ্ব ভ্রমণ যাত্রা। 

Comments

comments

Close
%d bloggers like this: