আজ: ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং, সোমবার, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ৩০শে জমাদিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী, রাত ১১:৪৮
সর্বশেষ সংবাদ
প্রধান সংবাদ, রাজনীতি, শিক্ষাঙ্গন ঢাবি ছাত্রলীগের নেতৃত্বের দৌড়ে এগিয়ে যারা

ঢাবি ছাত্রলীগের নেতৃত্বের দৌড়ে এগিয়ে যারা


পোস্ট করেছেন: মতপ্রকাশ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ২৯/০৪/২০১৮ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: প্রধান সংবাদ,রাজনীতি,শিক্ষাঙ্গন


আজ রবিবার (২৯ এপ্রিল) সকাল ১০টায় উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে শুরু হবে শিক্ষা, শান্তি, প্রগতির পতাকাবাহী সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ইউনিট, ছাত্ররাজনীতির উর্বর ভূমি হিসেবে খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ছাত্রলীগের জাতীয় সম্মেলন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ এ সম্মেলন উদ্বোধন করবেন। সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে থাকবেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। প্রধান বক্তা হিসেবে থাকবেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এস জাকির হোসাইন। সম্মেলনে সভাপতিত্ব করবেন ঢাবি ছাত্রলীগের বর্তমান সভাপতি আবিদ আল হাসান।

আর এ সম্মেলনকে ঘিরে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের মাঝে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। পদপ্রত্যাশীরাও ছাত্রলীগের সবচেয়ে গুরত্বপূর্ণ এ ইউনিট ও শীর্ষ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শীর্ষপদ পেতে শেষ মুহূর্তের দৌঁড়ঝাপ অব্যাহত রেখেছেন। সবাই যার যার অবস্থান থেকে আওয়ামী লীগ হাইকমান্ডের সাথে শেষবারের মতো যোগাযোগের চেষ্টা করছেন।

পদপ্রত্যাশীসহ সকল ছাত্রলীগ নেতা-কর্মী ও সাধারণ শিক্ষার্থীদের প্রত্যাশা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগে মেধাবী, ছাত্রবান্ধব, রাজপথে সক্রিয়, ত্যাগী ও সাংগঠনিক গুণাবলীসম্পন্ন নেতা আসবেন।

এবারের ঢাবি ছাত্রলীগের সম্মেলন সিন্ডিকেটমুক্ত হবে বলে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে। এমনকি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরাসরি নেতৃত্ব বাছাইয়ের ক্ষেত্রে তত্ত্বাবধান করবেন বলেও আভাস পাওয়া গেছে।

আরো জানা গেছে, অনুপ্রবেশকারীরা যাতে দলে ঢুকতে না পারে, সে ব্যাপারে কঠোর থাকার নির্দেশনা রয়েছে আওয়ামী লীগের হাইকমান্ড থেকে। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগও বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে নিয়েছে। রাজপথে সর্বদা যারা সক্রিয় ছিল, যাদের পরিবার আওয়ামী লীগের সঙ্গে জড়িত, দলের দুঃসময়ে যারা ছাত্রলীগের সঙ্গে জড়িত ছিল, ক্লিন ইমেজের স্বচ্ছ রাজনীতির ধারক-বাহক এবং দূরদর্শীসম্পন্ন নেতৃবৃন্দ মনোনীত হবে।

কেমন নেতৃত্ব আসবে এমন প্রশ্নের জবাবে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর এক নম্বর পছন্দ মেধাবী ছাত্র। অবশ্যই যারা বিভিন্ন অভিযোগে অভিযুক্ত তারা আসবে না। এবং যারা ছাত্রলীগকে ভালোবেসে জীবনবাজি রেখে বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে ছিল তারাই নেতৃত্বে আসবে।

সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন বলেন, অবশ্যই যারা ত্যাগী, সৎ, দুর্দিনে ছাত্রলীগের সঙ্গে ছিল এবং যারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মিশন-ভিশন বাস্তবায়ন করতে পারবে এমন নেতৃত্ব আসবে।

ছাত্রলীগের বিগত সম্মেলনগুলো বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, সম্মেলনে নেতৃত্ব নির্বাচনে কয়েকটি বিষয় দেখা হয়। এর মধ্যে রয়েছে- পারিবারিক পরিচিতি, নিয়মিত ছাত্রত্ব, সংগঠনের জন্য ত্যাগ ও এলাকা।

সে হিসেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতৃত্ব নির্বাচনে অন্যান্য যোগ্যতার পাশাপাশি এলাকার বিষয়টি বিশেষ প্রাধান্য পাচ্ছে। সেক্ষেত্রে চট্টগ্রাম অঞ্চল, উত্তরবঙ্গ অঞ্চল, বৃহত্তর বরিশাল ও ফরিদপুর অঞ্চল আলোচনার কেন্দ্রে রয়েছে।

নেতৃত্বের দৌড়ে এগিয়ে যারা : বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, শীর্ষ পদে আসীন হওয়ার দৌড়ে প্রাথমিক তালিকায় যারা আছেন তাদের মধ্যে সিলেট অঞ্চল থেকে জিয়া হলের সভাপতি ইউসুফ উদ্দিন খান অপূর্ব, উপ-দফতর সম্পাদক নুরুল আলম শাওন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের উপমানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক জহির আহমেদ খান।

বরিশাল অঞ্চল থেকে কেন্দ্রীয় উপসম্পাদক শেখ ইনান, সহ-সম্পাদক খাদিমুল বাশার জয়, সহ-সম্পাদক ইমরান জমাদ্দার, ফজলুল হক হলের সভাপতি শাহরিয়ার সিদ্দিক শিশিম, জসীম উদ্দীন হলের সভাপতি সৈয়দ মো. আরিফ হোসেন।

ঢাকা ও ময়মনসিংহ অঞ্চল থেকে অমর একুশে হলের সাধারণ সম্পাদক এহসান উল্লাহ পিয়াল, জগন্নাথ হল ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাস, এসএম হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান তাপস।

ফরিদপুর অঞ্চল থেকে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের উপগ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক ফুয়াদ হোসেন শাহাদাত, সহ-সম্পাদক মো. রনি, ঢাবি শাখার সহ-সভাপতি বিদ্যুৎ শাহরিয়ার কবির, এ এফ রহমান হলের সভাপতি হাফিজুর রহমান এবং কবি জসীম উদ্দীন হল শাখার সাধারণ সম্পাদক শাহেদ খান।

চট্টগ্রাম অঞ্চল থেকে উপগণশিক্ষা সম্পাদক ফখরুল ইসলাম জুয়েল, কর্মসূচি ও পরিকল্পনা উপসম্পাদক মুরাদ হায়দার টিপু, উপআন্তর্জাতিক সম্পাদক এইচ এম তাজ উদ্দিন, ঢাবি শাখার সহ-সভাপতি মো. জাবেদ হোসেন, এস এম হলের সভাপতি তাহসান আহমেদ রাসেল এবং এ এফ রহমান হলের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান তুষার।

উত্তরবঙ্গ থেকে কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সম্পাদক রকিবুল ইসলাম ঐতিহ্য ও ঢাবি শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক হায়দার মোহাম্মদ জিতু।

এদিকে নতুন মডেলে ছাত্রলীগ গড়ার আলোচনায় পিছিয়ে নেই নারীরা নেত্রীরাও। শীর্ষ পদের দৌড়ে এগিয়ে আছেন সাংস্কৃতিক বিষয় উপসম্পাদক সাবরিনা ইতি, শামসুন্নাহার হলের সভাপতি নিপু তন্বী, সাধারণ সম্পাদক জিয়াসমিন শান্তা, রোকেয়া হলের সভাপতি বিএম লিপি আক্তার।

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালের ১১ জুন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সম্মেলন শেষে ১৮ জুন আবিদ আল হাসানকে সভাপতি এবং মোতাহার হোসেন প্রিন্সকে সাধারণ সম্পাদক করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি গঠন করা হয়।

Comments

comments

Close